বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ জানায়, বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে ৪টি, বীর মুক্তিযোদ্ধা লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে ১৬টি এবং শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টার কুয়েটে একটি প্রতিষ্ঠানকে জায়গা বরাদ্দ দেওয়া হয়। এ ছাড়া এ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের বিনিয়োগকারীদের অর্থায়ন করার লক্ষ্যে ব্র্যাক ব্যাংকের সঙ্গে পৃথক একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এই সমঝোতার আওতায় হাইটেক পার্কের বিনিয়োগকারীদের সহজ শর্তে ঋণ প্রদান করবে ব্র্যাক ব্যাংক।

আইসিটি খাত, একাডেমিয়া এবং অংশীজনদের মধ্যে সেতুবন্ধ তৈরি, আইসিটি খাতে দক্ষ মানবসম্পদ ও নারীর সক্ষমতা ও দক্ষতা উন্নয়ন, নারী উদ্যোক্তা এবং স্টার্টআপদের মধ্যে ইকোসিস্টেমের উন্নয়ন, আইসিটি খাতে গবেষণাসহ বিভিন্ন উদ্দেশ্য সাধনকল্পে ৪টি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেন, বাংলাদেশে টেকসই হাইটেক ম্যানুফ্যাকচারিং ইকোসিস্টেম নির্মাণের এখনই উপযুক্ত সময়। দেশে এই মুহূর্তে ১০টি হাইটেক পার্ক বিনিয়োগের জন্য প্রস্তুত।

সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ আশা করেন, এবার বরাদ্দ পাওয়া পার্ক তিনটিতে অন্তত এক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ ও ২ হাজার ৫০০ লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এ ছাড়া তিনি জানান, এখন পর্যন্ত হাইটেক পার্কগুলোতে ১৭৫টি প্রতিষ্ঠানকে জায়গা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে এবং ১৪৮টি স্থানীয় স্টার্টআপ কোম্পানিকে বিনা মূল্যে জায়গা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগ ও বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা এবং বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন