default-image

বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবসা সম্প্রসারণে সহায়তা করবে কানাডা। দেশটিতে বাংলাদেশি তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবসার প্রসার বাড়াতে যৌথভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস), কানাডিয়ান হাইকমিশন ও কানাডা বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (ক্যানচেম)। বেসিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) সভাপতি শামীম আহসান এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, কানাডার বাজারে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবসার প্রসার ও বিনিয়োগ বাড়াতে যৌথভাবে কাজ করবে বেসিস, কানাডিয়ান হাইকমিশন ও কানাডা বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (ক্যানচেম)। শিগগিরই দ্বিপক্ষীয় আলোচনা শুরু হবে। ইতিমধ্যে এ বিষয়ে এই তিনটি প্রতিষ্ঠান সম্মতি জানিয়েছে।
গতকাল রোববার ঢাকায় কানাডার হাইকমিশন ও কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ক্যানচেম) আয়োজনে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁ​ও হোটেলে অনুষ্ঠিত হয় ‘শোকেস কানাডা ২০১৫ ’ নামের এক সম্মেলন।
সম্মেলনে কানাডার হাইকমিশনার বেনওয়া পিয়েরে লাঘামে বলেন, বাংলাদেশ ও কানাডার বাণিজ্য সম্পর্ক অনেক ভালো। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যে আর্থিক পরিমাণ প্রায় ২০০ কোটি ডলার। আগামীতে বাণিজ্য আরও বেশি বাড়ানো হবে।
অনুষ্ঠানে দেশের তথ্যপ্রযুক্তির অবকাঠামো ও ই-কমার্সের বর্তমান অবস্থা নিয়ে প্রেজেন্টেশন দেন বেসিসের সিনিয়র সহ-সভাপতি রাসেল টি আহমেদ। তিনি বলেন, ই-কমার্সে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় দেশগুলোর তুলনায় বাংলাদেশে ই-কমার্স দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ক্যানচেম সভাপতি মাসুদ রহমান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী, সোগেমা টেকনোলজিসের ভাইস প্রেসিডেন্ট ডন জোয়িচ, ফ্লোরা টেলিকমের চেয়ারম্যান মোস্তফা রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন