default-image

গবেষকেরা প্রাচীনতম স্থলচর প্রাণীর খোঁজ পাওয়ার দাবি করেছেন। কেন্নোর মতো এক ইঞ্চি লম্বা একধরনের জীবকে মনে করা হচ্ছে পৃথিবীর প্রাচীনতম স্থলচর প্রাণী। গবেষকেরা বলছেন, স্কটল্যান্ডের কেরেরা দ্বীপে তাঁরা এর ফসিল বা জীবাশ্ম পেয়েছেন। কাম্পেরিস ওবেনেসিসের (Kampecaris obanensis) জীবাশ্ম থেকে মনে করা হচ্ছে, ৪২ কোটি ৫০ লাখ বছর আগের সিলুরিয়ান যুগে এর অস্তিত্ব ছিল।

‘হিস্টোরিক্যাল বায়োলজি’ সাময়িকীতে এই গবেষণা-সংক্রান্ত নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।

আর্থ্রোপোডা পর্বের প্রাণীটি সম্ভবত হ্রদের ধারে পচা গাছগুলো খেয়ে বেঁচে থাকত। আর্থ্রোপোডা পর্বটি প্রাণিজগতের মধ্যে সবচেয়ে বড়। এরা পৃথিবীর প্রায় সব পরিবেশে বাস করতে সক্ষম। এদের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, শরীর বিভিন্ন অঞ্চলে বিভক্ত ও সন্ধিযুক্ত উপাঙ্গ বিদ্যমান। মাথায় এক জোড়া পুঞ্জাক্ষি ও অ্যানটেনা থাকে। নরম শরীর কাইটিনসমৃদ্ধ শক্ত আবরণী দ্বারা আবৃত।

কানাডার সিবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গবেষকেরা আশা করছেন, প্রাচীনতম আর্থ্রোপোডা পর্বের প্রাণীটির সন্ধান পৃথিবীর শুষ্ক সময়কালের প্রাণী সম্পর্কে ধারণা দেবে।

গবেষকেরা বলছেন, কাম্পেরিস ২ দশমিক ৫ সেন্টিমিটার লম্বা এবং এর শরীর বিভাজিত ছিল, যা বর্তমান সময়ের কেন্নোর সঙ্গে মেলে। কিন্তু বিলুপ্ত এ প্রাণীটির সঙ্গে এখনকার কেন্নোদের বংশানুক্রমিক সংযোগ নেই। জীবাশ্মে এর পা সংরক্ষিত ছিল না।

টেক্সাস ইউনিভার্সিটি ও ম্যাসাচুসেটস বোস্টন ইউনিভার্সিটির প্যালিওনটোলজিস্ট মাইকেল ব্রুকফিল্ডের মতে, কাম্পেরিস জীবাশ্মের থেকে জানা প্রথম ভূচর প্রাণী। তবে মাটির কীটগুলো এর আগে থেকে রয়েছে বলে ধারণা করা হয়। যার সম্ভবত ৪৫ কোটি বছর আগে অস্তিত্ব ছিল।
গবেষকেরা মনে করেন, জীবন প্রায় ৫৪ কোটি বছর আগে বৈচিত্র্যের বিস্ফোরণের মধ্য দিয়ে বিশ্বের সমুদ্রগুলোতে প্রথম বিকশিত হয়েছিল। স্থলভাগে জীবন বিকশিত হয়ে আরও কিছু পরে। ৪৫ কোটি বছর আগে মসসদৃশ উদ্ভিদের মাধ্যমে স্থলে প্রাণের স্পন্দন শুরু হয়। আরও পরে কুকোসোনিয়ার মতো ডালপালাসহ উদ্ভিদের বিস্তৃতি জটিল ও স্থিতিশীল বাস্তুতন্ত্রের সূচনা করতে সহায়তা করে।

প্রথম ভূমি মেরুদণ্ডী উভচর অগভীর জলের বাসিন্দা মাছ থেকে বিবর্তিত হয়ে ৩৭ কোটি ৫০ লাখ বছর আগে দেখা দিয়েছিল। সরীসৃপ, পাখি ও স্তন্যপায়ী প্রাণীদের পূর্বপুরুষ ও হোমো-সেপিয়েন্সসহ জীবিত প্রাণীদের বিকাশ শুরু হয়েছিল তিন লাখ বছর আগে।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন