ফেসবুকে ইনস্টাগ্রামের স্টোরিজ

বিজ্ঞাপন
default-image

কয়েক বছর ধরে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ ফেসবুকের মূল ওয়েবসাইটের সঙ্গে তাঁদের জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ প্ল্যাটফর্মগুলো যুক্ত করার বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন।

তাঁর পরিকল্পনা অনুযায়ী, ফেসবুকের অধীনে থাকা প্রতিটি সেবা পরস্পরের সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে। ইতিমধ্যে ইনস্টাগ্রাম ও ফেসবুকের মধ্যে এ সংযোগ দেখা যাচ্ছে। গত মাসেই ফেসবুক তাদের মেসেঞ্জার চ্যাটের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম ডাইরেক্ট মেসেঞ্জেস যুক্ত করেছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস উভয় প্ল্যাটফর্মে চালু হয়েছে। এবারে স্টোরিজ ফিচার ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামের মধ্যে পরস্পর সংযুক্ত করা হচ্ছে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট টেকক্রাঞ্চের তথ্য অনুযায়ী, ফেসবুক যে ফিচার নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে, তাতে ইনস্টাগ্রাম অনুসরণকারীরা ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীর স্টোরিজগুলো এখন ফেসবুক থেকেও দেখতে পাবেন। ফেসবুক ব্যবহারকারীর হাতে ফিচারটি চালু রাখা বা বন্ধ রাখার সুবিধা দিচ্ছে। ফেসবুকে এ ধরনের ফিচারে স্ক্রিনশট ছড়িয়ে পড়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ থেকে বোঝা যায়, যাঁরা ইনস্টাগ্রামে কাউকে অনুসরণ করেন এবং তাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে যদি ইনস্টাগ্রাম যুক্ত থাকে, তবে তিনি ওই স্টোরিজ ফেসবুক থেকেই দেখতে পাবেন। ফেসবুকে বন্ধু হলেও যদি ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার না হন, তবে এই স্টোরিজ দেখা যাবে না।

ফেসবুকে মূলত ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলের নামটি দেখা যাবে। ইনস্টাগ্রাম থেকে কতজন স্টোরিজ দেখেছে এবং এর জবাব দিয়েছেন, তা দেখে নেওয়া যাবে। ফেসবুকের নতুন ফিচারটির বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন ফেসবুকের কর্মকর্তা আলেকজান্দ্রু ভয়সা।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘এটি বাস্তবে আসছে। আমরা নতুন একটি ফিচার পরীক্ষা করছি, যাতে মানুষকে ইনস্টাগ্রামের স্টোরিজ ফেসবুকে দেখার সুবিধা দেবে।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভয়সা আরও বলেন, ‘ফেসবুকে যাঁরা ইনস্টাগ্রাম স্টোরিজ দেখতে চান, তাঁদের অবশ্যই অ্যাকাউন্ট ফেসবুকের সঙ্গে যুক্ত থাকে হবে। এ ফিচার সব ধরনের প্রাইভেসি সেটিংস মেনে তৈরি করেছে ফেসবুক।’

ভায়সার ভাষ্য, ‘এতে স্টোরিজ দেখা না–দেখার বিষয়টি ব্যবহারকারীর হাতে রাখা হয়েছে। তবে পরীক্ষাটি সীমিত আকারে করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীর প্রতিক্রিয়া শুনব আমরা।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন