default-image

ফেসবুকে ফ্যাশন ব্র্যান্ড গুচির নকল পণ্য বিক্রির অভিযোগে একজনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে যৌথ মামলা করেছে গুচি ও ফেসবুক। গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নকল পণ্য বিক্রির অভিযোগে এই প্রথম এভাবে মামলা করল ফেসবুক ও গুচি। তবে এমন অভিযোগে বিগত বছরগুলোতে বিলাসদ্রব্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ভালেন্টিনো এবং ফের্‌রাগামোর সঙ্গে যৌথভাবে মামলা করেছে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজন।

এক যৌথ বিবৃতিতে অভিযুক্ত ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ না করে গুচি ও ফেসবুক জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি একাধিক ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে অনলাইনে তাঁর প্রতিষ্ঠানের নকল পণ্য আন্তর্জাতিকভাবে বাজারজাত করতেন।

করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্বের অনেক অঞ্চলে বিপণিবিতানগুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গত বছর থেকে অনলাইনে বিলাসসামগ্রীর বিক্রি বেড়েছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে ক্রমে ই-কমার্সে ঝুঁকছে ফেসবুক। বিলাসদ্রব্য বাজারজাতকরণেও বড় ভূমিকা রাখতে চায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটি। তবে তা করতে হলে প্ল্যাটফর্মটি যে আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডগুলোর জন্য নিরাপদ, তা পরিষ্কারভাবে বোঝাতে হবে। কারণ, গুচির মতো অনেক ব্র্যান্ডই তৃতীয় পক্ষের বিক্রেতার মাধ্যমে পণ্য বিক্রিতে অনীহা দেখিয়েছে আগে।

ওই যৌথ বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, গুচিসহ অন্য ব্র্যান্ড মালিকদের অভিযোগের ভিত্তিতে ২০২০ সালের প্রথমার্ধে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম থেকে ১০ লাখের বেশি কনটেন্ট সরিয়ে ফেলা হয়েছে। আর কেবল ২০২০ সালেই অনলাইনে নানা প্ল্যাটফর্মে বিক্রির জন্য লিপিবদ্ধ ৪০ লাখ নকল পণ্য সরিয়ে ফেলার উদ্যোগ নেয় গুচির মেধাস্বত্ব দল। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অ্যাকাউন্টসহ প্রায় ৪৫ হাজার ওয়েবসাইটও নিষ্ক্রিয় করা হয় বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন