default-image

করোনাকাল পেরিয়ে আবার ঘুরে দাঁড়াচ্ছে স্মার্টফোনের বাজার। বছরের তৃতীয় প্রান্তিক অর্থাৎ জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর মাসে ব্যাপক পরিবর্তন দেখা গেছে। হুয়াওয়েকে শীর্ষস্থান থেকে সরিয়ে দিয়েছে স্যামসাং। চীনা স্মার্টফোন নির্মাতা শাওমি করপোরেশন চীন ও ইউরোপের বাজার দখল করে অ্যাপলকে পেছনে ফেলেছে। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্যানালিস এ তথ্য জানিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ক্যানালিসের তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের তৃতীয় প্রান্তিকের তুলনায় এ বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে ১ শতাংশ বাজার প্রবৃদ্ধি কমেছে। গত ৩ মাসে ৩৪ কোটি ৮০ লাখ ইউনিট স্মার্টফোন বাজারে এসেছে। বছরের করোনায় আক্রান্ত দ্বিতীয় প্রান্তিক অর্থাৎ এপ্রিল থেকে জুন মাসের তুলনায় ২২ শতাংশ স্মার্টফোন বিক্রি বেড়েছে।

বিজ্ঞাপন

রয়টার্স জানিয়েছে, ভারতের বাজারে স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন বিক্রি বেড়ে যাওয়ায় স্যামসাং আবার শীর্ষে ফিরেছে। দেশটিতে রাজনৈতিক কারণে চীনা ব্র্যান্ডগুলো সমস্যায় পড়েছে। মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ায় বৈশ্বিক স্মার্টফোনের বাজারে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেছে হুয়াওয়ে।

এ মাসের শুরুর দিকে আইফোন বাজারে এনেছে অ্যাপল। কিন্তু আগের প্রান্তিকে নতুন আইফোন না আসায় বাজারে চতুর্থ স্থানে নেমে গেছে অ্যাপল। বাজারের তৃতীয় স্থানটি শাওমির। তারা তৃতীয় প্রান্তিকে ৪ কোটি ৭১ লাখ ইউনিট স্মার্টফোন বিক্রি করেছে। গত বছরের তুলনায় ৪৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

গত বৃহস্পতিবার বাজার গবেষণা কাউন্টার পয়েন্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, স্মার্টফোনের বাজারে চতুর্থ স্থানে নেমে গেলেও চীনের বাজারে সবচেয়ে বেশি বিক্রীত ফোন ছিল আইফোন ১১ মডেলটি।

নতুন আইফোন আসবে বলে চীনের বাজারে আইফোন বিক্রি ২৯ শতাংশ কমে গিয়েছিল। চলমান প্রান্তিকে অ্যাপল ভালো করবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। চীনের বাজারে সবচেয়ে ভালো করেছে শাওমি। গত বছরের তুলনায় ৮ শতাংশ বিক্রি বেড়েছে তাদের।

কাউন্টারপয়েন্টের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বের বৃহত্তম স্মার্টফোন বাজার হিসেবে চীনের বাজার সংকুচিত হচ্ছে। বাজারে স্মার্টফোন আসার হার ১৪ শতাংশ কমেছে।

ক্যানালিসের বাজার বিশ্লেষক মো জিয়া বলেছেন, হুয়াওয়ের কাছ থেকে বাজার দখল ছিনিয়ে নিতে আগ্রাসী হয়েছে শাওমি। হুয়াওয়ের স্মার্টফোন ছাড়ার হার ২৫ শতাংশ কমেছে আর শাওমির বেড়েছে ৮৮ শতাংশ পর্যন্ত।

চিপের ক্ষেত্রে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা জারি থাকায় স্মার্টফোনের বাজারে হুয়াওয়ের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

হুয়াওয়ে কনজুমার ব্যবসার প্রধান নির্বাহী রিচার্ড ইয়ু বলেছেন, সেপ্টেম্বর থেকে তাঁদের কিরিন চিপসেট-নির্ভর স্মার্টফোন তৈরি বন্ধ হয়ে যাবে। কিরিন হচ্ছে হাই অ্যান্ড চিপসেট, যা তৈরিতে মার্কিন প্রযুক্তি ব্যবহৃত হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0