বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রব্যাপী টি-মোবাইলের ৭০ হাজারের বেশি ফাইভ–জি গ্রাহকের ৪ কোটি ৩০ লাখ তথ্যের নমুনা ঘেঁটে প্রতিবেদনটি পেশ করে উমলাউট নামের অ্যাকসেঞ্চার মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান। সে প্রতিবেদন প্রকাশের পর টি-মোবাইলের প্রযুক্তিবিষয়ক প্রেসিডেন্ট নেভিল রে গত জুলাইয়ে এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, ‘অন্য যেকোনো প্রতিষ্ঠানের চেয়ে দেশের সর্বাধিক এলাকায় দ্রুত এবং নির্ভরযোগ্য ফাইভ–জি সংযোগের জন্য টি-মোবাইলের ওপর নির্ভর করতে পারেন ব্যক্তি এবং প্রাতিষ্ঠানিক গ্রাহকেরা। উমলাউটের প্রতিবেদন তারই সর্বশেষ প্রমাণ। অন্যান্য নেটওয়ার্কও এগিয়ে যাচ্ছে, তবে দেশজুড়ে গ্রাহকদের চমৎকার অভিজ্ঞতা দিতে আমরা ফাইভ–জি কভারেজ ও সক্ষমতা বাড়িয়েই চলেছি।’

ফাইভ–জি নেটওয়ার্কের নির্ভরযোগ্যতা পরিমাপের জন্য টি-মোবাইলের নেটওয়ার্কের তিনটি দিক পরীক্ষা করে দেখে উমলাউট-ফাইভ–জি কভারেজ, গ্রাহকসংখ্যা এবং ডাউনলোডের গতি।

default-image

টি-মোবাইলের যুক্তি দেখিয়েছিল, অনেক গ্রাহক ফোর–জি থেকে ফাইভ–জি, আবার ফাইভ–জি থেকে ফোর–জি নেটওয়ার্কে পরিবর্তন করে থাকে এবং উমলাউটের পরীক্ষায় কত গ্রাহক ফোর–জি থেকে ফাইভ–জি ব্যবহার শুরু করেছেন, তা দেখা হয়েছে। তবে এনএডি বলছে, ফাইভ–জি সম্পর্কে কোনো দাবি করতে হলে তা অবশ্যই কেবল ফাইভ–জি গ্রাহকের তথ্য নিয়ে করতে হবে। তা ছাড়া কেবল গতি আর কভারেজের ওপর নির্ভর করে নির্ভরযোগ্যতার দাবি করা যায় না।

এনএডির সিদ্ধান্তে হতাশ হয়েছে বলে জানিয়েছে টি-মোবাইল। সে সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবেদন করবে বলেও জানিয়েছে। উমলাউটের স্বাধীন পর্যবেক্ষণে ফলাফলের ওপর নির্ভর করে বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারা উচিত বলেও যুক্তি দেখিয়েছে তারা।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন