default-image

টেসলার প্রধান নির্বাহী এলন মাস্ক, আমাজনের জেফ বেজোস, মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাকড। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল বুধবার বড় বড় ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে ফেলে সাইবার স্ক্যামাররা। তারা এসব অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে ক্রিপটোকারেন্সি বিটকয়েন নেওয়ার জন্য মানুষকে প্রলুব্ধ করতে শুরু করে।

হ্যাকড অ্যাকাউন্টের তালিকায় রয়েছে জো বাইডেন, বারাক ওবামা, উবার, মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস, বিটকয়েন বিশেষজ্ঞ প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান।

টুইটারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, টুইটার অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা ভাঙার বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অবগত। তদন্ত চলছে। দ্রুত এটি ঠিক করার পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। হালনাগাদ তথ্য শিগগিরই জানাতে পারব।

বাইডেনের নির্বাচন কর্মসূচির পক্ষ থেকে বলা হয়, হ্যাকড অ্যাকাউন্ট দ্রুত বন্ধ করে দেয় টুইটার ও ভুয়া টুইট মুছে দেয়।

এএফপি জানায়, অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার পর ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করা বন্ধ করে দেয় টুইটার কর্তৃপক্ষ। টুইটারের নিরাপত্তা টিম জানায়, নিরাপত্তা ভাঙার বিষয়ে পর্যবেক্ষণ ও তদন্ত চলতে থাকায় পাসওয়ার্ড রিসেট বা টুইট করার বিষয়টি করা যাবে না।

বড় বড় ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে ভুয়া বার্তা দিয়ে বলা হয়, ৩০ মিনিটের মধ্যে এক হাজার ডলার বিটকয়েনে পাঠালে দ্রুত এর দ্বিগুণ ফেরত পাওয়া যাবে।

তবে অনেকেই একে স্ক্যাম ও প্রতারণা বলে সঙ্গে সঙ্গে টুইট করতে থাকেন। এর মধ্যে ভুয়া টুইটের সঙ্গে পাঠানো ঠিকানায় এক লাখ ১৬ হাজার ডলার পাঠিয়ে দিয়েছেন অনেকেই। এলন মাস্কের মতো টেসলার সিইওর অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে ৩০ মিনিটের অফারে পয়সা দ্বিগুণ করার অফার দেওয়ার কারণে অনেকেই এতে ঝাঁপিয়ে পড়েন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

দুর্বৃত্তরা অন্যান্য বিখ্যাত ব্যক্তিত্বের অ্যাকাউন্ট থেকেও ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে তাৎক্ষণিক অর্থের প্রতিশ্রুতি দেয়। রাইডশেয়ার হেভিওয়েট উবারের অ্যাকাউন্ট ও বিটকয়েন ট্রেডিং সংস্থাগুলোর হ্যাক করে একই প্রতিশ্রুতি দেয়। তবে ৮ কোটি ৩০ লাখ অনুসারী থাকা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্টে হাত দেয়নি তারা।
এর আগেও ২০১৭ সালে টুইটারে বড় বড় সংস্থার অ্যাকাউন্ট বেহাত হওয়ার ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে অ্যামিনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের অ্যাকাউন্টও ছিল। এমনটি টুইটারের প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক ডরসির অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে সেখানে বর্ণবাদী মন্তব্য পোস্ট করেছিল হ্যাকাররা।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন