বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইউরোপীয় স্পেস এজেন্সির (ইএসএ) ফরাসি নভোচারী টমাস পেসকে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের চলতি অভিযান শেষে পৃথিবীতে ফেরার অপেক্ষায় আছেন। অরোরার ছবিটি তাঁরই তোলা। টুইটারে সেটি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘এই পুরো অভিযানের সবচেয়ে শক্তিশালী অরোরার দেখা পেলাম, উত্তর আমেরিকা এবং কানাডার ওপর। (আলোর) চমৎকার চূড়াগুলো আমাদের কক্ষপথের চেয়েও উঁচু এবং আমরা বলয়ের কেন্দ্রের ঠিক ওপর দিয়েই উড়ে গিয়েছি। চারদিকে ঢেউয়ের স্পন্দন।’

সূর্য থেকে তড়িতাহিত সৌরকণা পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে আঘাত করলে তৈরি হয় অরোরা। নাসা যেমন লিখেছে, ‘আমরা যখন উজ্জ্বল অরোরা দেখি, আসলে আমরা দেখি কোটি কোটি স্বতন্ত্র সংঘর্ষ, এতে পৃথিবীর চুম্বকক্ষেত্র উজ্জ্বল হয়ে ওঠে।’

এসব অবশ্য বিজ্ঞানের ব্যাখ্যা। পেসকের ছবি দেখতে এত বিজ্ঞান না বুঝলেও চলে। হয়তো প্রকৃতির উদ্‌যাপন বলা চলে। কিংবা সূর্যের সঙ্গে আমাদের গ্রহের যোগসূত্রের প্রমাণ।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন থেকে এর আগেও অরোরার অনেক ছবি ও ভিডিও পাঠিয়েছেন নভোচারীরা। নিচের ভিডিওটি গত মাসের।

আরও আগের এই ভিডিওটিও দেখতে পারেন।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন