default-image

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ক্লাবহাউসে আলোচনার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ইলন মাস্ক। সেটা মাস্কের হেঁয়ালি বলে উড়িয়ে দিতে চেয়েছেন অনেকে। তবে পুতিন তাঁদের মধ্যে নন। তিনি আলোচনায় আগ্রহী বলে শোনা যাচ্ছে।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেস্কোভ জানিয়েছেন, প্রস্তাবটি মজার, তবে তিনি আগে আরও বিস্তারিত জানতে চান। রুশ বার্তা সংস্থা টাসের প্রতিবেদনে বলা হয়, পেস্কোভ গতকাল সোমবার সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রথমে আমরা ব্যাপারটা বুঝতে চাই। আপনারা জানেন প্রেসিডেন্ট পুতিন নিজে সরাসরি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করেন না। সার্বিকভাবে এটা বেশ মজার প্রস্তাব। তবে আগে তো বুঝতে হবে কী বোঝাতে চাওয়া হয়েছে, কী প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।’

বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরির প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইলন মাস্ক গত শনিবার টুইটারে ভ্লাদিমির পুতিনকে ক্লাবহাউসে আমন্ত্রণ জানান। এরপরই রুশ ভাষায় মাস্ক যোগ করেন, পুতিনের সঙ্গে কথা বললে নিজেকে সম্মানিত বোধ করবেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ক্লাবহাউসকে অডিওনির্ভর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অ্যাপ বলা যেতে পারে। সেখানে কেবল কথা বলে আলোচনা চলে, ছবি-ভিডিওর ব্যবস্থা নেই।

default-image

দিন কয়েক আগে ইলন মাস্ক এবং ফেসবুকের মার্ক জাকারবার্গসহ জনপ্রিয়রা ক্লাবহাউসে ভক্তদের সঙ্গে কথোপকথন চালালে অ্যাপটি দ্রুত জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে। ‘স্পেসেস’ নামে একই ধরনের সেবা চালু করেছে টুইটার। কিছু প্রতিবেদনে তো বলা হয়েছে, জনপ্রিয়তার কারণে ফেসবুকও ক্লাবহাউসের মতো সেবা চালু করতে কাজ করছে। এদিকে অন্যান্য মার্কিন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের মতো গত সপ্তাহে ক্লাবহাউস বন্ধ করেছে চীন। গত মাসে বিনিয়োগকারীরা ক্লাবহাউসের মূল্য ১০০ কোটি ডলার ধার্য করেন।

ক্লাবহাউসের আইফোন অ্যাপটি বর্তমানে ‘ইনভাইট-অনলি’ মোডে আছে। অর্থাৎ কেবল বিদ্যমান কোনো ব্যবহারকারীর আমন্ত্রণ পেলে তবেই যোগ দেওয়া যাবে। অ্যাপটিতে কোনো ব্যবহারকারী আলোচনা শুরু করতে পারেন, সেটি ‘অন স্টেজ’ হিসেবে পরিচিত। শ্রোতারা সে আলোচনা শুনতে যোগ দিতে পারবেন। আর আলোচক চাইলে অন স্টেজে কোনো শ্রোতাকে প্রশ্ন করার আহ্বান জানাতে পারেন।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন