default-image

বছরের প্রথম প্রান্তিক, অর্থাৎ, জানুয়ারি থেকে মার্চ এ তিন মাসের আয় ঘোষণা করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। আজ বুধবার স্যামসাং জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়েছে তাদের ব্যবসায়। তাদের মূল মুনাফা বছরের প্রথম প্রান্তিকে ৩ শতাংশ কমে গেছে।

গ্রাহকের চাহিদা কমে যাওয়ার ফলেই এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পরের প্রান্তিকে মুনাফা আরও কমবে বলে সতর্ক করেছে বিশ্বের বৃহত্তম স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

স্যামসাং এক বিবৃতিতে বলেছে, জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে তাদের মূল মুনাফা হয়েছে ৪.৮৮ ট্রিয়িলন ওন (৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার), যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ৩ দশমিক ১ শতাংশ কম। এর আংশিক কারণ কোভিড-১৯ এর প্রভাব। এপ্রিল থেকে জুন প্রান্তিকে আরও খারাপ ফল দেখতে হতে পারে।
এএফপি বলছে, করোনা মহামারিতে বৈশ্বিক অর্থনীতির সর্বনাশের কারণে এই পরিসংখ্যান উঠে এসেছে । চলতি মাসের গোড়ার দিকে স্যামসাং বিদেশি ১১ টি অ্যাসেম্বর লাইনে কার্যক্রম স্থগিত করেছে।

স্যামসাং সতর্ক করেছে, সামগ্রিক আয় আগের তিন মাসের থেকে হ্রাস পেতে পারে। কারণ, কোভিড-১৯ তাদের মূল পণ্যগুলোর চাহিদার ওপরে উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাব ফেলবে। মানুষ ঘরে বসে কাজ করায় পিসি ও সার্ভারের চাহিদা বাড়লেও স্মার্টফোন, টিভির মতো প্রতিষ্ঠিত ব্যবসার মুনাফা কমবে। বিশ্বব্যাপী অনেক উৎপাদন কারখানা বন্ধ করতে হতে পারে।
বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্ট্রাটেজি অ্যানালিটিকসের গবেষক উডি ওহ বলেন, স্যামসাংয়ের প্রথম প্রান্তিকের আয়ে করোনাভাইরাসের প্রভাব সামান্য দেখা গেলেও দ্বিতীয় প্রান্তিকে আসল প্রভাব বোঝা যাবে। এপ্রিল থেকে জুনে করেোনাভাইরাসের প্রভাব পরিস্কার হলে প্রতিটি কোম্পানি তাদের সবচেয়ে বাজে আয়ের প্রতিবেদন দেবে।
সিউলে স্যামসাংয়ের শেয়ারের দাম আজ সকালে শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ পড়ে গেছে। এ বছরেই স্যামসাং তাদের ৫জি প্রিমিয়াম স্মার্টফোন ও ভাঁজ করা গ্যালাক্সি জেড ফ্লিপ বাজারে আনার পরিকল্পনা করেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0