বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিনেমাটির প্রযোজকেরা বিবিসিকে বলেছেন, গেমের চরিত্রগুলো পর্দায় ফুটিয়ে তোলার অনন্য প্রতিভা আছে বলেই এই অভিনেতাদের নির্বাচন করা হয়েছে।

মারিও ও লুইগিকে নিয়ে এটাই প্রথম চলচ্চিত্র নয়। ১৯৯৩ সালে ভিডিও গেম সিরিজটি অবলম্বনে সিনেমা হয়েছে। তবে সমালোচকদের মুখ থেকে খুব একটা প্রশংসাবাক্য মেলেনি সেবার।

নির্মিতব্য সুপার মারিও ব্রাদার্স সিনেমার প্রযোজক ক্রিস মেলেড্যান্ড্রি বলেছেন, মানুষের সবচেয়ে পছন্দের দুই হিরো মারিও ও লুইগি। এবার চরিত্রগুলো পর্দায় জীবন্ত করে তুলতে চান।

সুপার মারিও ব্রাদার্স ভিডিও গেমের প্রকাশক প্রতিষ্ঠান নিনটেনডোর শিগেরু মিয়ামোতো বলেছেন, তিনি আশা করছেন সুপার মারিও ব্রাদার্সকে পর্দায় ফুটিয়ে তুললে তা বিনোদনের নতুন মাধ্যম হবে। তা ছাড়া গেমটি সম্পর্কে কেউ জানুক বা না জানুক, চলচ্চিত্রটি সবাই উপভোগ করবে বলেও মনে করেন তিনি।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন