default-image

আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির জগতে প্রতিদিনই নানা অগ্রগতি হচ্ছে। কিন্তু সেগুলোর মধ্যে খুবই গুরুত্বপূর্ণ অর্জনের সংখ্যা হাতে গোনা। প্রযুক্তি ব্যবহারে এ বছরে নতুন মাত্রা এনে দিয়েছে—এমন কয়েকটি অগ্রগতি চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রযুক্তিবিদদের এসব বড় সাফল্য আগামী বছরগুলোয় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আজ ছাপা হলো নবম পর্ব
রোবটযানের সাফল্য
২০১৪ সালে মহাকাশবিজ্ঞানে ধূমকেতু ছিল আলোচনার শীর্ষে। সিক্সটিসেভেনপি/চুরিয়ামভ-গেরাসিমেঙ্কো নামের একটি ধূমকেতু অধিকাংশ সময় মঙ্গল ও বৃহস্পতি গ্রহের মাঝামাঝি অঞ্চলে বিচরণ করেছে। আর সেখানে গত নভেম্বরে প্রথমবারের মতো অবতরণ করেছে পৃথিবীর কোনো মহাকাশযান। ইউরোপীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (ইএসএ) রোবটযানটির নাম ফিলে
কিছু সীমাবদ্ধতা
ইএসএর মহাকাশযান রোজেটা থেকে ফিলে নামের রোবটযানটি সিক্সটিসেভেনপি ধূমকেতুতে পৌঁছায়। সেখানে রয়েছে ধুলা ও বরফ। তাই ফিলের অবতরণ নিয়ে সংশয়ে ছিলেন বিজ্ঞানীরা। এ ক্ষেত্রে প্রধান সমস্যা হলো পৃথিবীর তুলনায় সেখানকার মাধ্যাকর্ষণ অনেক কম। অবতরণের পর পৃথিবীর সঙ্গে ফিলের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়
কেন গুরুত্বপূর্ণ
ফিলের পাঠানো ধূমকেতুপৃষ্ঠের ছবি দেখে সেখানকার রাসায়নিক বিন্যাস বিশ্লেষণ করেন বিজ্ঞানীরা। এসব তথ্য থেকে ৪৫০ কোটি বছর আগে সৌরজগৎ সৃষ্টির সময়ের নানা দিক সম্পর্কে জানা যাবে বলে গবেষকেরা আশা করেন। অবতরণের পরপরই রোবটযানটি ওই ধূমকেতু থেকে সংগৃহীত কিছু তথ্য-উপাত্ত ও ছবি পৃথিবীতে পাঠিয়েছে। বিজ্ঞানীরা সেগুলো নিয়ে গবেষণা করছেন

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন