default-image

বাংলাদেশের স্টার্টআপদের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধির পাশাপাশি দেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম বিকশিত করতে বাংলাদেশ-দক্ষিণ কোরিয়া যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘আইডিয়াথন’ প্রতিযোগিতা। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে আইডিয়া প্রকল্প আয়োজন করছে এই প্রতিযোগিতা।

এতে সহ-আয়োজক হিসেবে রয়েছে কোরিয়া প্রোডাকটিভিটি সেন্টার (কেপিসি) এবং কোরিয়া ইনভেনশন প্রমোশন অ্যাসোসিয়েশন (কাইপা)।

‘লেটস স্টার্ট ইউ আপ’স্লোগানে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় সেরা ৫ উদ্ভাবনী স্টার্টআপকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হবে। বিজয়ীরা পাবে দক্ষিণ কোরিয়াতে ৬ মাসের বিশেষ প্রশিক্ষণ, ইনকিউবেশন, অর্থায়ন, আন্তর্জাতিক পেটেন্টসহ কপিরাইট ও ট্রেডমার্কের সহযোগিতা। এ ছাড়া সেরা ২৫টি টিম পাবে বিশেষ মেন্টরিং সুবিধা।

গতকাল শনিবার এ প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ। তিনি বলেন, তরুণদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা দিতে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে। আয়োজনে বাংলাদেশ ও কোরিয়ার মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও জোরদার হবে।

বিজ্ঞাপন

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, দেশে প্রায় ১০ কোটি ৩৬ লাখ ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা তৈরি হয়েছে এবং একেবারে ইউনিয়ন পর্যায়ে ফাইবার অপটিক্যাল কেবল আমরা নিয়ে যেতে পেরেছি। আমাদের সরকারের ডিজিটাল সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে প্রায় নয় শ সেবা জনগণের হাতের মুঠোয় এনেছে। আইসিটি ইন্ডাস্ট্রি থেকে রপ্তানি প্রায় বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে আমাদের লক্ষ্যে পাঁচ বিলিয়ন ডলারের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের রপ্তানির সেবা পার হওয়া।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) নির্বাহী পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) পার্থপ্রতিম দেব, স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক টিনা এফ জাবিন। অনুষ্ঠানে সভাপতি ছিলেন আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব সৈয়দ মজিবুল হক।

আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক বলেন, আইডিয়াথন তরুণ উদ্ভাবকদের তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক উদ্ভাবনী সমাধান তৈরিতে উৎসাহিত করবে। এ ছাড়া উদ্যোক্তাদের বৈদেশিক পরিবেশে এ ধরনের আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ তাঁদের দক্ষ করে তুলবে, যা পরবর্তী সময়ে তাঁদের ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক আগ্রহী স্টার্টআপগুলো নিবন্ধন করতে হবে। দুই থেকে চারজনের দল গঠন করে আবেদন করতে হবে। আবেদনকারীর বয়স ২২ থেকে ৩৯ বছরের মধ্যে হতে হবে।

২১ নভেম্বর পর্যন্ত আইডিয়াথনের ওয়েবসাইটে আবেদন করা যাবে। নিবন্ধনের পর ১০০টি স্টার্টআপকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হবে। সেখান থেকে ২৫টি স্টার্টআপ চূড়ান্ত পর্বে যাবে।

মন্তব্য পড়ুন 0