default-image

যুক্তরাজ্যে কয়েক হাজার আমাজন কর্মীকে বলা হলো, তাঁদের করোনা শনাক্ত হয়েছে, থাকতে হবে সঙ্গনিরোধে (আইসোলেশনে)। পরে জানা গেল পরীক্ষার ফলাফল ভুল, তাঁদের করোনা শনাক্তই হয়নি।

১৩ ফেব্রুয়ারি প্রায় ৩ হাজার ৮৫৩ জন আমাজন কর্মীকে করোনা শনাক্তের কথা জানিয়েছিল যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগ। পরে সেটি সংশোধন করা হয়। স্বাস্থ্য বিভাগের এক মুখপাত্র সংবাদমাধ্যম এবিসি নিউজকে বলেছেন, যুক্তরাজ্যের জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা (এনএইচএস) থেকে ওই কর্মীদের দ্রুত জানিয়ে দেওয়া হয় যে আইসোলেশনে থাকার প্রয়োজন নেই।

ওই কর্মীদের কাজ কী কিংবা যুক্তরাজ্যের কোথায় কাজ করেন, তা জানায়নি আমাজন। কর্মক্ষেত্রে পিসিআর টেস্টিংয়ের মাধ্যমে নিয়মিত করোনার পরীক্ষা করে থাকে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটি। ফলাফলে পজিটিভ পেলে জনস্বাস্থ্য বিভাগকে জানায় আমাজন। আর সে তথ্য এনএইচএসকে জানায় জনস্বাস্থ্য বিভাগ।

যুক্তরাজ্যে এরই মধ্যে করোনাভাইরাসের নতুন এক ধরন ছড়িয়ে পড়েছে। সেটি তুলনামূলক বেশি সংক্রামক। ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বের অন্য দেশগুলোতেও। তবে ব্রিটিশ সরকারের স্বাস্থ্যবিষয়ক তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে করোনায় নতুন সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার দুটোই কমছে।

এনএইচএসের নির্দেশনা অনুযায়ী, আমাজনের ওই কর্মীদের সাহায্য করার জন্য ‘প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা’ নিতে সহযোগীদের নির্দেশ দিয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে আমাজন।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন