default-image

দক্ষিণ কোরীয় গাড়ি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হুন্দাই মোটর এবং কিয়া মোটরসের পক্ষ থেকে আজ সোমবার জানানো হয়, স্বয়ংক্রিয় গাড়ি তৈরির ব্যাপারে তারা আর অ্যাপলের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে না। এরপরেই দক্ষিণ কোরিয়ায় হুন্দাই ও কিয়ার শেয়ারদর যথাক্রমে ৬ দশমিক ২১ এবং ১৫ শতাংশ কমে যায়। হুন্দাইয়ের অন্যান্য অঙ্গপ্রতিষ্ঠানের শেয়ারদরেও পতন দেখা যায়।

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, একাধিক প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে যৌথ উদ্যোগে স্বয়ংক্রিয় বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরির অনুরোধ পেয়ে আসছে হুন্দাই মোটর। তবে প্রাথমিক পর্যায়ে আছে বলে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। সঙ্গে যোগ করেছে, স্বয়ংক্রিয় গাড়ি তৈরির ব্যাপারে অ্যাপলের সঙ্গে কোনো আলোচনা চালাচ্ছে না হুন্দাই মোটর।

হুন্দাই মোটর গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান হলো কিয়া। এর আগে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, অ্যাপলের স্বয়ংক্রিয় গাড়ি তৈরির জন্য আলোচনা চলছে হুন্দাইয়ের সঙ্গে। এর কিছুদিন পর আবারও প্রতিবেদনে বলা হয়, ঠিক হুন্দাই মোটর নয়, বরং অঙ্গপ্রতিষ্ঠান কিয়া মোটরস বানাবে অ্যাপলের স্বয়ংক্রিয় বৈদ্যুতিক গাড়ি। এদিকে গত শুক্রবার ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় অ্যাপলের স্বয়ংক্রিয় গাড়ি বানানোর জন্য সহযোগী প্রতিষ্ঠান খুঁজছে কিয়া। সিএনবিসি আরেক কাঠি বাড়িয়ে লিখেছে, ওদের চুক্তি হলো বলে। অথচ এত দিন বাদে মুখ খুলে সবাইকে হতাশ করল হুন্দাই মোটর।

বিজ্ঞাপন
default-image

ভেতরের খবর জানেন, এমন একজনের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ বলেছে, অ্যাপল, হুন্দাই এবং কিয়া আলোচনা বন্ধ করেছে সম্প্রতি। ব্লুমবার্গের তথ্য অনুযায়ী, সম্ভাব্য অংশীদারত্বের খবর ফাঁস হওয়ায় বিরক্ত হয়েছে অ্যাপল। কারণ, নিজেদের ইচ্ছা না হওয়া পর্যন্ত গোপন প্রকল্প গোপন রাখতেই চায় তারা।

গত মাসে হুন্দাই প্রকাশ্যেই জানিয়েছিল, অ্যাপলের সঙ্গে আলোচনার প্রাথমিক পর্যায়ে আছে তারা। তবে পরে সে বিবৃতি বদলে ফেলে। তা ছাড়া আরেকটি প্রতিষ্ঠানের হয়ে গাড়ি বানানো নিয়ে হুন্দাইয়ের নির্বাহীদের মধ্যেও বিভক্তি দেখা যায়। আবার হুন্দাই এবং কিয়ার মধ্যে কে অ্যাপলের গাড়ি বানাবে, তা নিয়েও অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব দেখা দেয় বলেও শোনা গেছে।

স্বয়ংক্রিয় গাড়ি তৈরির ব্যাপারে অ্যাপল কখনো প্রকাশ্যে কোনো বিবৃতি দেয়নি। তবে একাধিক উৎস থেকে জানা যায়, প্রতিষ্ঠানের ভেতরে প্রকল্পটি ‘প্রজেক্ট টাইটান’ নামে পরিচিত। সেই ২০১৪ সালেই কাজ শুরু হয়েছে বলেও রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। আর ২০২৪ সাল নাগাদ বাজারে অ্যাপল কার ছাড়ার পরিকল্পনা তাদের।

সূত্র: সিএনবিসি, বিজনেস ইনসাইডার

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন