default-image

আকর্ষণীয় দামে সেরা হার্ডওয়্যারের সঙ্গে অত্যাধুনিক ফিচারে রিয়েলমির স্মার্টফোনগুলো তরুণদের মন জয় করে নিয়েছে। আর সি সিরিজের ফোনগুলো খুব সহজেই স্মার্টফোন ফ্যানদের হাতে হাতে পৌঁছে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় রিয়েলমি এবার নিয়ে এল সি ১৫-কোয়ালকম এডিশন। বিশাল ৬,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, ১৮ ওয়াটের কুইক চার্জিং ও এআই কোয়াড ক্যামেরার এই ফোনে আর কী কী আছে, চলুন দেখে নেওয়া যাক।

৪৮ দিনের স্ট্যান্ডবাই-সহ ৬,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের বিশাল ব্যাটারির সঙ্গে আছে অনন্য ডিজাইন। বর্তমান সময়ে স্মার্টফোনের ব্যবহার বেড়ে গেছে অনেকটাই। প্রেজেন্টেশন তৈরি, গান শোনা, মুভি কিংবা টিভি সিরিজ দেখা, আর অনলাইন গেমিং তো আছেই। শক্তিশালী ব্যাটারি ছাড়া তো এখন স্মার্টফোন ভাবাই যায় না। আর তাই সি সিরিজের সর্বশেষ এই ফোনে আছে ৬,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি, যা একবার সম্পূর্ণ চার্জে দেবে ১৪ ঘণ্টার বেশি মোবাইল লেজেন্ড অনলাইন গেমিং বা ২৬.৮ ঘণ্টা মুভি দেখা বা প্রায় ১১৯ ঘণ্টা অডিও প্লেব্যাক অথবা প্রায় ৪৬ ঘণ্টা কল টাইম পাওয়া যাবে। এ ছাড়া সম্পূর্ণ ব্যাটারিতে দেবে ৪৮ দিনের স্ট্যান্ডবাই।

ফোনটিতে আছে ‘অ্যাপ কুইক ফ্রিজার’, যা একটি নির্দিষ্ট সময় পর আপনার অব্যবহৃত অ্যাপগুলো বন্ধ করে ব্যাটারির সাপোর্ট বাড়াতে সাহায্য করবে। এর পাশাপাশি উন্নত স্ক্রিন ব্যাটারি অপটিমাইজেশন এবং এআই পাওয়ার সেভিংয়ের ফলে পাওয়া যাবে চমৎকার ব্যাটারি ব্যাকআপ। সি ১৫-কোয়ালকম এডিশনে আছে রিভার্স চার্জিংয়ের সুবিধাও, যার ফলে এই ফোনকে পাওয়ার ব্যাংক হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে, মাইক্রো ইউএসবি ওটিজির মাধ্যমে অন্য ফোনও চার্জ দেওয়া যাবে। আর ১৮ ওয়াটের কুইক চার্জিংয়ের বিশাল ব্যাটারির ২৮ শতাংশ চার্জ হবে মাত্র ৩০ মিনিটেই।
রিয়েলমি সি ১৫-কোয়ালকম এডিশনে ব্যবহৃত হয়েছে দৃষ্টিনন্দন জ্যামিতিক ডিজাইন। পেছনের ট্রাপিজোয়েড কভার এ অংশকে ৩টি ভাগে বিভক্ত করেছে এবং একেক দিক থেকে আলো পড়লে বিভিন্ন রঙের বিচ্ছুরণ হয়। ভিউ অ্যাঙ্গেল পরিবর্তিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিটি এলাকার রং ও আলোও পরিবর্তিত হয়।

বিজ্ঞাপন

রাতের অসাধারণ সব ছবি তুলতে সুপার নাইটস্কেপ
রিয়েলমি সি ১৫-কোয়ালকম এডিশনে আছে এআই কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা। ১৩ মেগাপিক্সেলের প্রধান ক্যামেরায় এফ/২.২–এর বড় অ্যাপারচার। ৮ মেগাপিক্সেলের ১১৯-ডিগ্রি আলট্রা-ওয়াইড ক্যামেরায় দৃষ্টিসীমানার পুরোটাই পাবেন একটি ফ্রেমে। এর অনন্য সব পোর্ট্রেট তোলার জন্য আছে ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট ও রেট্রো লেন্স। এ দুটো লেন্সের সমন্বয়ে স্পেশাল ইফেক্টে চমৎকার সব ছবি তোলা যাবে। এ ছাড়া সি ১৫-কোয়ালকম এডিশনের নাইটস্কেপ মোডে অল্প আলোতেও রাতের ছবিতে মিলবে অসাধারণ ডিটেইল।

তা ছাড়া ৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ফ্রন্ট ক্যামেরায় তোলা যাবে প্রাণবন্ত সেলফি। ক্রোমাবুস্টের ব্যবহারে ছবি হবে আরও উজ্জ্বল ও রঙিন। ৩০ ফ্রেমে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিওর পাশাপাশি ক্যামেরায় আছে টাইম-ল্যাপ্স ও এইচডিআর সুবিধা।

শক্তিশালী প্রসেসরে গেমিং হবে আরও মজাদার
রিয়েলমি সি ১৫-কোয়ালকম এডিশনে ব্যবহার করা হয়েছে ১১ ন্যানোমিটারে স্ন্যাপড্রাগন ৪৬০ চিপসেট। অক্টা-কোর প্রসেসরের ব্যবহারে কোয়ালকমের এ চিপসেট সর্বোচ্চ ১.৮ গিগাহার্টজ গতিতে কাজ করতে পারে, ফলে কাজ ও গেমিং এ পাওয়া যাবে চমৎকার এক্সপেরিয়েন্স। ৪ গিগাবাইট এলপিডিডিআর৪ এক্স র‍্যামের ব্যবহারে পারফরম্যান্স বাড়ার ব্যাটারির ওপরও চাপ কমাবে। দুটি ভ্যারিয়েন্টে ৬৪ গিগাবাইট এবং ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজের পাশাপাশি মাইক্রো এসডি কার্ডের ব্যবহারে ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়ানোর সুবিধাও রয়েছে।

সি সিরিজের পূর্ববর্তী ফোনগুলো বাংলাদেশের স্মার্টফোন ফ্যানদের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল। অত্যাধুনিক ফিচারের সংযোজনে উন্নততর হার্ডওয়্যার-সফটওয়্যার অপটিমাইজেশনে মেরিন ব্লু ও সিগাল সিলভার-এ দুই রঙে সি সিরিজের নতুন এ ফোনও ৪/৬৪ জিবি ভ্যারিয়েন্টটি মাত্র ১২,৯৯০ টাকা এবং ৪/১২৮ জিবি ভ্যারিয়েন্টটি মাত্র ১৪ হাজার ৪৯০ টাকায় সবার মন জয় করে নেবে। অতি শিগগির দুটি ভ্যারিয়েন্টই দেশব্যাপী পাওয়া যাবে। কেনার জন্য বিস্তারিত জানতে https://realmebd.com/brandshop/ এ ঢু মারতে পারেন।

মন্তব্য পড়ুন 0