বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যদি বিজোড় সংখ্যা দিয়ে গুণ করতে হয়, তাহলে নিয়মটা একটু অন্য রকম হবে। মনে করি, ৯ দিয়ে গুণ করব। প্রথমে ৫-কে যে সংখ্যা দিয়ে গুণ করব, এ ক্ষেত্রে ৯, সেই সংখ্যা থেকে ১ বিয়োগ করে ২ দিয়ে ভাগ করি। অর্থাৎ (৯-১)/২ = (৮/২) = ৪। এখন শুধু প্রাপ্ত ফলের পর, যে ৫-কে প্রথমে গুণ করছি, সেই ৫ বসিয়ে দিই। আমাদের হিসাব অনুযায়ী সেটা হবে ৪-এর পর ৫ = ৪৫। এটাই উত্তর। (৫*৯) = ৪৫।

দেখলেন তো গণিতে কত মজা!

এ সপ্তাহের ধাঁধা

আমার কাছে বেশ কিছু চকলেট আছে। এর ৪ ভাগের ৩ ভাগ, অর্থাৎ ৩/৪ অংশ কয়েকজন শিশুর মধ্যে সমান ভাগ করে দিলাম। প্রত্যেক শিশু তাদের দেওয়া চকলেটের ১২ ভাগের ১ ভাগ (১/১২) করে চকলেট পেল। এখন বলুন তো শিশুদের সংখ্যা কত? প্রত্যেক শিশু ন্যূনতম কতটি করে চকলেট পেয়েছে? আমার কাছে ন্যূনতম কতটি চকলেট ছিল? আপনার উত্তর আমার ই-মেইলে পাঠাতে পারেন। সঠিক উত্তর দেখুন আগামী রোববার এই অনলাইন কলামে।

গত রোববার প্রকাশিত ধাঁধার উত্তর

ধাঁধাটি ছিল এ রকম: সাধারণত দুটি সংখ্যার গুণফলের চেয়ে যোগফলের মান কম হয়। কিন্তু বিশেষ ক্ষেত্রে বেশিও হতে পারে। বীজগণিতের কোনো সূত্র ব্যবহার না করে শুধু মনে মনে হিসাব করে দুই মিনিটের মধ্যে এমন দুটি সংখ্যা বের করুন তো যাদের গুণফলের চেয়ে যোগফল বেশি? এ উত্তর একাধিক হতে পারে।

উত্তর

একটি সংখ্যা ০ অথবা ১ হবে। অপরটি অন্য যেকোনো সংখ্যা হতে পারে। যেমন, ধরা যাক ০ ও ৮। এদের গুণফল (০*৮) = ০ কিন্তু যোগফল (০ + ৮) = ৮, যা গুণফলের চেয়ে ৮ বেশি! একইভাবে, ধরা যাক সংখ্যা দুটি ১ ও ৩৫। এদের গুণফল (১*৩৫) = ৩৫ কিন্তু যোগফল (১ + ৩৫) = ৩৬, যা গুণফলের চেয়ে ১ বেশি!

কীভাবে উত্তর বের করলাম

উত্তর বের করার প্রধান সূত্র হলো ০ ও ১-এর বৈশিষ্ট্য। যেকোনো সংখ্যাকে ০ দিয়ে গুণ করলে ০ হয়ে যাবে, কিন্তু যোগ করলে অন্য সংখ্যাটিই হবে, যা ০-এর চেয়ে অবশ্যই বেশি। অন্যদিকে, ১ সংখ্যাটিকে অন্য যেকোনো সংখ্যা দিয়ে গুণ করলে অপরিবর্তিত থেকে যায়, কিন্তু যোগ করলে ১ বেড়ে যায়। যেমন ১ ও ১৫। গুণ করলে ১৫, কিন্তু যোগ করলে ১ বেড়ে হয় ১৬।

  • আব্দুল কাইয়ুম, সম্পাদক, মাসিক ম্যাগাজিন বিজ্ঞানচিন্তা
    [email protected]

বিজ্ঞান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন