ম্যানিক ম্যাংগুর দরকার কিছু চার্ট এক্সপার্ট

ম্যানিক ম্যাংগু ভাইরাস গেইমিং কোম্পানির কিছু চার্ট এক্সপার্ট প্রয়োজন। কোম্পানির প্রধান তাঁর সিইওকে পরবর্তী গেমটির পরিকল্পনা দেখানোর জন্য অনুরোধ করলেন। সিইওকে সব তথ্য প্রেজেন্ট করার জন্য স্মার্ট এবং দ্রুততম পদ্ধতির প্রয়োজন। সে তোমাকে জিনিসপত্র নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করে কাজ করার জন্য বললেন। এই কাজ অনেকজনকে দেওয়া হয়েছে! যদি সবকিছু ঠিকঠাকভাবে কাজ করে, তবে ম্যানিক ম্যাংগু বিশেষ স্পন্সরশিপ পাবে এবং তোমাকে তোমার পরিশ্রমের জন্য বিশেষ বোনাস দেওয়া হবে!

সিইও প্রথমে প্রত্যেক মানুষের কাছে এই গেম বিক্রির তথ্যগুলো সংগ্রহ করল এবং একটি গ্রাফিং সফটওয়্যারে তথ্যগুলো দিয়ে একটি গ্রাফ পেল:

অতি সুশীল পাই চার্ট

পাই চার্ট আসলে আমাদের তথ্যের সেটকে ভাগ করে ফেলে কতগুলো গ্রুপ অথবা ক্যাটাগরিতে। আর বিভিন্ন গ্রুপে ভাগ করে ফেলার পদ্ধতিটি দারুণ। এই ভাগ সে করে একটি বৃত্তকে বিভিন্ন সাইজে টুকরা করে। প্রতি ছোট ছোট টুকরা একেকটি তথ্যকে প্রেজেন্ট করে। এই যে টুকরা, এগুলোর আকার নির্ভর করে আসলে প্রতি ভাগে কত ভাগ তথ্য আছে অন্যান্য ভাগের তুলনায়, তার ওপর। এই টুকরাগুলোর মধ্যে যে সব থেকে বড়, সে সব থেকে বড় টুকরাটি প্রেজেন্ট করে থাকে! প্রতিটি গ্রুপে থাকা নম্বরকে বলে ফ্রিকোয়েন্সি!

পাই চার্ট পুরো তথ্যসেটকে বিভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত করে। অর্থাৎ এই টুকরার ফ্রিকোয়েন্সিগুলো যোগ করলে আমরা ১০০ ভাগ পাব। আমাদের ওপরের পাই চার্টটির চুলচেরা বিশ্লেষণ করা যাক এবার:

এখানকার সব থেকে ছোট যে ভাগ সেটি হলো Other। এখানে অন্যান্য ভাগের থেকে কম বিক্রয় হয়েছে। অর্থাৎ এখানে সব চেয়ে কম তথ্য আছে। তুমি এই টুকরাগুলোকে বিভিন্ন ফ্রিকোয়েন্সি বা শতকরা হারে পাই চার্টে বসাতে পারো।

এই পাই চার্ট আসলে কাজে লাগে কখন?

আমরা দেখলাম যে প্রতিটি টুকরা আসলে প্রতিটি তথ্য গ্রুপকে রিপ্রেজেন্ট করে। আমরা পাই চার্ট ব্যবহার করে প্রাথমিক অনুপাতগুলোকে তুলনা করতে পারব। পাই চার্ট দেখে সহজেই বলে দেওয়া যায় যে কোন গ্রুপে অন্যদের থেকে বেশি ফ্রিকোয়েন্সি বা শতকরা হারে বেশি আছে। যদি কখনো সব তথ্যের গ্রুপগুলো সমান হয়, তখন পাই চার্ট খুব বেশি কাজে আসবে না। তো, এবার ম্যানিক ম্যাংগুর পাই চার্টটি কেমন কাজে আসবে?

চার্টের অপারগতা

প্রত্যেক মানুষের কাছে এই গেম বিক্রির পাই চার্ট, আমাদের আরেকটি চার্ট তৈরি করার তাগিদ অনুভব করায়। আর এই চার্ট হলো এই গেমের প্রতি মানুষের সন্তুষ্টির চার্ট!

ম্যানিক ম্যাংগু কোম্পানির সিইওর প্রয়োজন হবে এটা দেখা যে প্রতিটি গ্রুপের মানুষ কেমন সন্তুষ্ট এই গেমের প্রতি।

সে আবার সেই সফটওয়্যারে তথ্য দিল, কিন্তু এবার সে খুশি হতে পারল না!

কী আশ্চর্য! মাথায় হাত! এখানে সব পার্সেন্টেজ আলাদা, তবে টুকরাগুলো সব সমান! এ আবার কেমন ভুতুড়ে কাণ্ড!

আরে, এখানে কী হলো এটা?

সবগুলো টুকরা সমান হলো কীভাবে? ভাইরাস গেমিং কোম্পানির সিইওর মাথায় হাত! সে এবার তার চার্ট এক্সপার্টদের কাছে বলল, তোমরা কি এখানে আমাকে কিছু সাহায্য করতে পারবে?

এই পাই চার্টের সব টুকরার মধ্যে আসলে খুব বেশি পার্থক্য নেই, যার কারণে চার্টটি দেখেই চট করে বলে ফেলা প্রায় অসম্ভব যে কোনটির ফ্রিকোয়েন্সি সর্বোচ্চ আর কোনটির সর্বনিম্ন!

এখানে আরেকটি ব্যাপার হলো স্পোর্টের অংশ ৯৯ ভাগ হলেও চার্টে মাত্র ২০ ভাগ জায়গা দখল করেছে! এমনটি কেন হলো?

তথ্যগুলো আরও ভালোভাবে লক্ষ করো এবং বোঝার চেষ্টা করো এই রকম তথ্যের জন্য পারফেক্ট চার্টটি কেমন হবে?

আরও পড়ুন

গণিত ইশকুল |পরিসংখ্যানের গল্প (পর্ব ২)