default-image

গত ঈদে ঘরে বসে নির্মাণ করা হয়েছিল সাত পর্বের সাতটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সিরিজ ‘ঘরবন্দী সময়ের গল্প’ নামে। আগামী ঈদের জন্য ‘ঘরবন্দী সময়ের গল্প সিজন-২’ নির্মাণ করা হচ্ছে। এবারও সাত পরিচালক সাতটি পর্ব নির্মাণ করবেন। তবে এবার সুমন আনোয়ার ও গৌতম কৈরির বদলে থাকছেন দীপংকর দীপন ও রায়হান রাফি। সঙ্গে আছেন আগের সিরিজের গিয়াস উদ্দিন সেলিম, নূরুল আলম আতিক, শিহাব শাহীন, অনিমেষ আইচ ও সাফায়েত মনসুর রানা।

চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে শুটিং শুরু হওয়ার কথা আছে। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের সিরিজটির গল্প ঘরবন্দী সময়কে ঘিরেই। এখন অভিনয়শিল্পী নির্বাচনের কাজ চলছে। জুলাইয়ের দ্বিতীয় সপ্তাহে শুটিং শুরু হবে। তবে দুয়েকটি পর্বের গল্প, অভিনেতা ও অভিনেত্রীর নাম চূড়ান্ত হয়নি এখনো। দ্বিতীয় সিজনও আলফা আই স্টুডিওসের ব্যানারে নির্মিত হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রযোজক শাহরিয়ার শাকিল জানালেন, গত ঈদে ‘ঘরবন্দী সময়ের গল্প’ শিরোনামে আলাদা নামে সাতটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হয়েছিল। প্রচারের পর ভালো সাড়া ছিল। দর্শকদের সেই আগ্রহ থেকে দ্বিতীয় সিজন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘এবার একটু বাড়তি বাজেট, বাড়তি যত্ন নিয়ে কাজটি করছি। গতবার শিল্পীরা নিজেরাই মোবাইল ফোনে দৃশ্য ধারণ করে অভিনয় করেছিলেন। এবারও শিল্পীদের বাসায়ই শুটিং হবে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্যামেরা, ক্যামেরাম্যান রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। যাতে কনটেন্টগুলোর কাজ আরেকটু উন্নত হয়।’

default-image

এই প্রযোজক জানান, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের সিরিজটির গল্প ঘরবন্দী সময়েরই। তবে গল্পগুলো নানা ধরনের, নানা আঙ্গিকের হবে। গল্পগুলোর অভিনয়শিল্পী নির্বাচনের কাজ চলছে। জুলাইয়ের দ্বিতীয় সপ্তাহে শুটিং শুরু হয়ে যাবে।

গিয়াস উদ্দিন সেলিম গত সিরিজে নির্মাণ করেছিলেন ‘কোয়ারেন্টিন’। এবার এটির দ্বিতীয় কিস্তি বানাবেন। নাম ‘কোয়ারেন্টিন ২’। তিনি জানান, আগের গল্পের ধারাবাহিকতা থাকবে। তবে গত দুই মাসে ঘরবন্দী মানুষের মধ্যে যে পরিবর্তন এসেছে, সেই বিষয়গুলোও গল্পে উঠে আসবে। দ্বিতীয় কিস্তিতে অভিনয়শিল্পীর মধ্যে কোনো পরিবর্তন করা হচ্ছে না। দীপা খন্দকার, শাহেদ আলীসহ তাঁদের সন্তানেরাই এবারও অভিনয় করবেন।

নূরুল আলম আতিক ‘শিকারি ফুল’, অনিমেষ আইচ ‘কে’, দীপংকর দীপন ‘আইসোলেশন’, সাফায়েত মনসুর রানা ‘মধ্যনায়ক ২’, রায়হান রাফি ‘নিশ্বাস’ পর্বগুলো নির্মাণ করবেন। শিহাব শাহীনের গল্পের নাম এখনো ঠিক হয়নি। এবার প্রথম কাজ করতে যাচ্ছেন দীপংকর দীপন। তিনি বলেন, ‘প্রথম কিস্তির গল্পগুলো ভালো করে দেখে নিচ্ছি। দ্বিতীয় কিস্তিরও সব গল্প ঘরবন্দী সময়ের। কিন্তু তার মধ্য থেকেও কীভাবে একটু আলাদা কাজ করা যায়, আপাতত সেটাই ভাবছি।’

default-image

শিহাব শাহিন এখনো গল্পের নাম ঠিক করেননি। তিনি বলেন, ‘পুরো গল্প এখনো লেখা শেষ করিনি। কাজ করছি। দু–চার দিনের মধ্যেই গল্পের নাম ও শিল্পীদের নাম বলতে পারব। এবার তো ক্যামেরাম্যান ও ক্যামেরার সাপোর্ট পাওয়া যাবে। গতবারের চেয়ে আরও উন্নতভাবে কাজটি করার সুযোগ থাকছে।’

প্রতিটি পর্বের সময়কাল ২০ থেকে ২২ মিনিট। পবিত্র ঈদুল আযহার দিন থেকে সপ্তম দিন পর্যন্ত প্রতিদিন রাত সাড়ে ৯টায় দীপ্ত টিভিতে প্রচারিত হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন