default-image

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টিকটক তারকা ড্যাজারিয়া কুইন্ট নয়েস। বয়স মাত্র ১৮ বছর। তরুণ এই তারকা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করলেন। ইনস্টাগ্রাম ও টিকটকে তাঁর অসংখ্য ফলোয়ার। খুলেছিলেন অনলাইন ব্যবসাও। কিন্তু বিষণ্নতা তাঁকে কেড়ে নিল। আত্মহত্যা করার আগে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে লেখেন, ‘এটি আমার শেষ পোস্ট।’
গত মঙ্গলবার মেয়ের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আনেন ড্যাজারিয়ার বাবা রহিম আলা। তিনি ইনস্টাগ্রামেই জানিয়েছেন তাঁর মেয়ের মৃত্যুর খবর। রহিম লিখেছেন, ‘আমার মেয়েকে এত ভালোবাসা জানানোর জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তবে দুর্ভাগ্যজনক, সে আর আমাদের মধ্যে নেই।’

বিজ্ঞাপন
default-image

মেয়ের মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছেন ড্যাজারিয়ার বাবা। এই টিকটক তারকার সঙ্গে তাঁর বাবার সুন্দর সম্পর্ক ছিল। ড্যাজারিয়ার বাবা রহিম ‘গো ফান্ড মি’তে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে এ ঘটনার বিস্তারিত জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘৮ ফেব্রুয়ারি সকালে ড্যাজারিয়া আমাদের ছেড়ে চলে যায়। তাকে দেবদূতদের সঙ্গে উড়ে যাওয়ার জন্য ডাকা হয়েছিল। সে আমার বন্ধু ছিল, ছোট্ট বন্ধু। আমি তাকে কবরে শোয়ানোর জন্য প্রস্তুত ছিলাম না। ড্যাজারিয়া খুব হাসিখুশি থাকত। আমি যখন বাড়ি ফিরতাম, তখন সে আমায় বাড়ির সামনের রাস্তায় দেখেই খুশি হয়ে যেত। আমার এখন একটি কথাই মনে হচ্ছে, ড্যাজারিয়া যদি তার মানসিক অবসাদ নিয়ে আমার সঙ্গে একবার কথা বলত, তাহলেও হয়তো কিছু করতে পারতাম। আমি তোমার হাত আবার ধরতে চাই ড্যাজারিয়া। এখন আমি যখন বাড়ি ফিরব, আমার জন্য কেউ আর অপেক্ষা করবে না। এখন তোমাকে স্বর্গের পরিদের সঙ্গে উড়ে যেতে দিতেই হবে। শুধু জেনো, বাবা তোমায় খুব খুব ভালোবাসে।’

default-image

ড্যাজারিয়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছিলেন প্রচুর জনপ্রিয়। অসংখ্য অনুরাগী ছিল তাঁর। এই জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে ‘ডি বিউটি আউটলেট’ নামে নিজের একটি ব্র্যান্ডও লঞ্চ করেছিলেন, যেখানে প্রসাধনী থেকে শুরু করে জামাকাপড় বিক্রি শুরু করেন ড্যাজারিয়া। তাঁর ইনস্টাগ্রামের ছবিতে দেখা যায়, ছড়ানো–ছিটানো বিভিন্ন প্যাকেট। ল্যাপটপ হাতে গভীর মনোযোগ দিয়ে কাজ করছেন ড্যাজারিয়া। এত অল্প বয়সেই এই উদ্যোক্তা ও টিকটক তারকার বিষণ্নতায় মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না তাঁর অনুরাগীরা। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর তিনি তাঁর নিজস্ব ব্র্যান্ড সম্পর্কে লিখেছিলেন, ‘আমি গতকাল মাত্র এটি খুলেছি। কিন্তু এই অল্প সময়ে যে পরিমাণ পণ্যের অর্ডার পেয়েছি, তা নিয়ে আমি সত্যিই খুশি।’

বিজ্ঞাপন
default-image

তিনি আরও বলেন, ‘আমার ও আমার এই ব্র্যান্ডের পাশে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।’
ড্যাজারিয়া কুইন্ট নয়েসের মৃত্যুর খবরে শোকাহত তাঁর অসংখ্য ফলোয়ার। তাঁর এক ভক্ত ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘শান্তিতে থাকো। আমরা একটা পরি হারালাম।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘আমি তাঁকে প্রচণ্ড ভালোবাসতাম। তিনি ছিলেন আমার অনুপ্রেরণা। শান্তিতে থাকুন তিনি।’
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা অঙ্গরাজ্যে থাকতেন ড্যাজারিয়া। টিকটকে এই তারকার ১ দশমিক ৪ মিলিয়ন ভক্ত।

বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন