শুক্রবার বিকেল ৪টায় ভার্চ্যুয়ালে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন হলো
শুক্রবার বিকেল ৪টায় ভার্চ্যুয়ালে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন হলোছবি:সংগৃহীত

করোনার আবহের মধ্যেই আজ শুক্রবার বিকেল ৪টায় ভার্চ্যুয়ালে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন হলো। এবার এই উৎসব ২৬ বছরে পা দিল। বিকেলে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সচিবালয় নবান্নের সভাঘরে ভার্চ্যুয়ালে এই উৎসবের উদ্বোধন করেন বলিউড তারকা ও পশ্চিমবঙ্গের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর শাহরুখ খান এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
গত বছরও এই উৎসবের উদ্বোধন করেছিলেন শাহরুখ খান। এবারও ভার্চ্যুয়ালে উপস্থিত থেকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন তিনি। বললেন, ‘আমার প্রিয় শহর কলকাতা। কলকাতা আমার একটি পরিবার। তাই তো এবার সশরীরে উপস্থিত হতে না পেরে আমার সত্যিই কষ্ট হচ্ছে। মন খারাপ লাগছে। আমি খুব দ্রুত কলকাতায় আসব। কথা বলব প্রিয়জনদের সঙ্গে। কলকাতা আমার সবচেয়ে ভালো লাগা শহর। তাকে ভুলতে পারি না। কিন্তু করোনা আমাদের সবকিছু উল্টে দিয়েছে। তবু চলচ্চিত্রপ্রেমী কলকাতার মানুষ এবং রাজ্য সরকার যেভাবে এবার এই উৎসবের আয়োজন করেছে, তাতে আমি মুগ্ধ, গর্বিত।’

default-image

শাহরুখ খান এই উৎসবের সাফল্য কামনা করে বলেন, ‘আমি জানি, কলকাতার মানুষ একদিন জয় করবে এই করোনাকে। তাদের মুখে হাসি ফুটবে। করোনা বিদায় নেবে। সামনের বছর আরও ভালোভাবে এই উৎসব হবে।’ এ সময় মমতা ভাই শাহরুখকে রাখিবন্ধনে আসতে বলেন।

বিজ্ঞাপন

মমতা শাহরুখ খানকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘এবারে এই উৎসবে যোগ দেওয়ার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাই। এই কোভিড পরিস্থিতিতে আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ।’ তাই এবার এই উৎসবকে সমৃদ্ধ করার জন্য শাহরুখসহ অন্যদেরও ধন্যবাদ জানান মমতা। মমতা আরও বলেছেন, ‘গত এক বছরে আমরা অনেক গুণী শিল্পীকে হারিয়েছি। সবার প্রতি রইল শোক ও শ্রদ্ধা।’

default-image

মমতা এ দিন এই আশাবাদও ব্যক্ত করেন, এই বাংলা একদিন বলিউড-হলিউডকে টেক্কা দেবে। বাংলা সিনেমা প্রথম জায়গা করে নেবে ভারতে। মমতা আরও বললেন, ‘সবাই মিলে আমরা এই মহামারি কোভিডকে পরাস্ত করতে সমর্থ হব। তবু আমরা এবার স্বল্পপরিসরে আয়োজন করেছি এই উৎসবের। এবারের চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দেওয়া ছবি বিনা মূল্যেই দেখানো হবে চলচ্চিত্রপ্রেমীদের।’

default-image

এ দিন উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেশ-বিদেশের একঝাঁক তারকা উপস্থিত ছিলেন। ছিলেন কলকাতার চলচ্চিত্র পরিচালক গৌতম ঘোষ, অনুভব সিনহা, হরনাথ চক্রবর্তী, চিত্রতারকা ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, কৌশিক সেন, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, পাওলি দাম, রণজিৎ মল্লিক, দেব, সোহম, পায়েল, অরিন্দম শীল, ঋতাভরী, অনন্যা চক্রবর্তী, কাঞ্চন মল্লিক, শোভন চক্রবর্তী, ইন্দ্রনীল সেন, মিমি চক্রবর্তী, ইন্দ্রাণী হালদারসহ একঝাঁক টালিউড তারকা।

যদিও করোনা আবহের কারণে এই উৎসব নভেম্বর থেকে সরিয়ে আনা হয়েছে জানুয়ারিতে। প্রতিবছরই এই উৎসব নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। কিন্তু করোনার কারণে এবার এই উৎসবের তারিখ দুইবার পিছিয়ে অবশেষে করা হয়েছে ৮ জানুয়ারি। প্রতিবছর এই উৎসব ঘিরে কলকাতায় দেশ-বিদেশের তারকার মেলা বসলেও এবার তা অনেকটাই অনুপস্থিত। এবার ৮টি সরকারি প্রেক্ষাগৃহে উৎসবে ছবি দেখানো হচ্ছে।

default-image

এবার এই উৎসবে যোগ দিয়েছে দেশ-বিদেশের ৮১টি ছবি এবং ৫০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি। বাংলাদেশ থেকে যোগ দিচ্ছে রেজওয়ান শাহরিয়ারের ছবি ‘নোনা জলের কাব্য’। এবারে এই উৎসবে ছবি দেখানো হবে কলকাতার ৮টি সরকারি প্রেক্ষাগৃহে। এবারের এই উৎসবের আজকের উদ্বোধনী ছবি হচ্ছে সত্যজিৎ রায়ের পরিচালিত ও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় অভিনীত ‘অপুর সংসার’।

বিজ্ঞাপন

গত বছর ছিল সত্যজিৎ রায়ের ‘গুপী গাইন বাঘা বাইন’। কলকাতার এই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ১৯৯৫ সাল থেকে চলে আসছে।

default-image

তবে এবার এই উৎসবকে স্বল্পপরিসরে নিয়ে আসা হয়েছে। এবারও সেরা ছবির জন্য দেওয়া হবে রয়েল বেঙ্গল গোন্ডেন ট্রফিসহ ৫১ লাখ রুপি। আর সেরা পরিচালককে দেওয়া হবে রয়েল বেঙ্গল গোল্ডেন ট্রফিসহ ২১ লাখ রুপি। এবার উৎসবে সদ্য প্রয়াত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে বিশেষ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।
এবার পণ্ডিত রবিশঙ্কর, অভিনেতা ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় আর সংগীতশিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের জন্মশতবর্ষ। এ উপলক্ষে এবারের উৎসবে এই তিন প্রখ্যাত শিল্পীকে শ্রদ্ধা জানানো হবে। এ ছাড়া এই উৎসবে বিশেষ শ্রদ্ধা জানানো হবে প্রয়াত চলচ্চিত্র তারকা বাসু চট্টোপাধ্যায়, ঋষি কাপুর, ইরফান খান, তাপস পাল, অমলা শঙ্কর ও সন্তু মুখোপাধ্যায়কেও। এবার বিনা খরচে ছবি দেখতে পারবেন চলচ্চিত্রপ্রেমীরা। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রেক্ষাগৃহে ঢুকতে হবে। পরতে হবে মাস্ক।

বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন