default-image

স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে ট্রেনের অপেক্ষায় বসে আছে কিছু মানুষ। একজন পুরুষের বিপরীত দিকে মুখ করে বসে আছে সাদা শাড়ি পরিহিত এক নারী। পাশে আরেকজন বসে বসে ঝিমুচ্ছে। কারও দৃষ্টি সামনে রেললাইনের দিকে। ওপরে সংবাদপত্রে লেখা রেল অবরোধ। স্টেশনের এমন চিত্র সংবাদপত্রের ওপরে ছাপচিত্রে ফুটিয়ে তুলেছেন শিল্পী নিত্যানন্দ গাইন। ছাপচিত্রের শিরোনাম ‘ওয়েটিং ফর জার্নি-দুই’।
১৮ ফেব্রুয়ারি চারুকলা ইনস্টিটিউটের শিল্পী রশিদ চৌধুরী আর্ট গ্যালারিতে ৩০টি ছাপচিত্র নিয়ে শুরু হয় শিল্পী নিত্যানন্দ গাইনের দ্বিতীয় একক ছাপচিত্র প্রদর্শনী।
প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন শিল্পী মনসুর উল করিম। অতিথি ছিলেন চারুকলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক নাসিমা আখতার, শিল্পী জসিম উদ্দীন ও শায়লা শারমিন।
শিল্পী চারপাশের ঘটে যাওয়া ঘটনাপ্রবাহকে ছাপচিত্রের মাধ্যমে নিজস্ব ঢঙে হাজির করেছেন এবারের প্রদর্শনীতে। ছবিগুলো লক্ষ করলে বোঝা যায়, প্রায় ছবিতে তিনি পিরামিডিক্যাল কম্পোজিশন তৈরি করেছেন।
সূক্ষ্ম আড়াআড়ি রেখা, বিন্দু ও মোটা ব্রাশের ব্যবহার ছবির জমিনে স্পষ্ট হয়ে ফুটে উঠেছে। তাঁর চিত্রপটের বৈশিষ্ট্য হলো সংবাদপত্র ও ছাপা অক্ষরকে কাজের ব্যাকগ্রাউন্ড হিসেবে ব্যবহার করেছেন। এতে রেখা ও রঙের সংবেদনশীলতা সৃষ্টি হয়েছে তাঁর কাজে। চিত্রপট ভরাট করেছেন সূক্ষ্ম রেখা, বিন্দু, অ্যাকুয়ান্টিং ও অক্ষরের টেক্সচারের মাধ্যমে। কিছু কাজে মোটা ব্রাশের ব্যবহার করেন লিথোগ্রাফে টুস পদ্ধতির মাধ্যমে। তাঁর সবগুলো কাজই সাদাকালো। তবে সারফেসের প্রয়োজনে তিনি ব্যবহার করেছেন লাল, সবুজ, ম্যাজেন্টা, কমলা ও হলুদ। কিছু কিছু ছবিতে লাইনের বহুমাত্রিকতার ভিন্নতা বর্ণিল করেছে কাজগুলো। চিত্রকর্মে উঠে এসেছে কর্মরত নারী, নির্যাতন, খেটে খাওয়া মানুষ, সুর ও নিসর্গ।
শিল্পী নিত্যনন্দ গাইন বলেন, ‘প্রতিদিনকার ঘটনা, রাস্তা ও স্টেশনের আশপাশের মানুষগুলো যেভাবে জীবন যাপন করছে তা তুলে ধরতে চেয়েছি ছাপচিত্রে। যা কিছুটা হলেও আমাদের মানবিকতাকে নাড়া দেবে।’
১৮ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া প্রদর্শনী চলবে ২৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

বিজ্ঞাপন
বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন