বড় পর্দায় বাংলা সিনেমা দেখতে তরুণ-তরুণীদের বিশাল সারি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে গতকাল বুধবার মন ভালো করে দেওয়া এই দৃশ্য দেখা গেল। শুধু ছবি দেখার জন্যই নয়, টিএসসি মাঠে সিনেমার পোস্টার, সঙ্গে নির্মাতা, শিল্পীদের জীবনী নিয়ে নান্দনিক প্রদর্শনী। দর্শক ছবি দেখার আগে-পরে সেখানে ভিড় করছেন। অমর একুশে বইমেলায় গিয়ে নতুন বই হাতে নিয়ে ফেরা অনেকেই একবার হলেও ঢুঁ মারছেন টিএসসি মিলনায়তনে। উদ্দেশ্য, বড় পর্দায় কালজয়ী ছবিগুলো দেখা।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ প্রতিবছরের মতো এবারও ‘আমার ভাষার চলচ্চিত্র উৎসব’ শিরোনামে এই আয়োজন করেছে। কাউন্টারে বসে টিকিট বিক্রি, দরজায় পাহারা, মিলনায়তনের ভেতরে টর্চ হাতে দর্শকদের দিকনির্দেশনা দেওয়া কিংবা টিএসসির সবুজ চত্বরে প্রদর্শনীর ছবিগুলো দেখভাল করাসহ সব কর্মযজ্ঞের কান্ডারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা, যাঁরা এই সংসদেরই সদস্য।
প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে প্রদর্শনী চলছে। চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ছাড়াও টিএসসি মিলনায়তনে হীরালাল সেন, ঋত্বিক কুমার ঘটক, জহির রায়হান, খান আতাউর রহমান, সুভাষ দত্ত, তারেক মাসুদ, সুমিতা দেবী, ববিতা, কবরী ও সালমান শাহর সংক্ষিপ্ত জীবনী ও প্রতিকৃতির বিশাল বিলবোর্ড টানানো হয়েছে। প্রদর্শনী দেখে কেউ কেউ মুঠোফোন কিংবা ডিজিটাল ক্যামেরায় প্রিয় শিল্পীর ছবির সঙ্গে নিজের ছবি তুলছেন।
আজ বৃহস্পতিবার প্রদর্শিত হবে তারেক মাসুদ পরিচালিত অন্তর্যাত্রা, নিরাপত্তার নামেও সেই, জহির রায়হান পরিচালিত টাকা আনা পাই, পি এ কাজল পরিচালিত ভালবাসা আজকাল এবং ইফতেখার চৌধুরী পরিচালিত অগ্নি।
ছয় দিনব্যাপী এবারের আসরটি এই উৎসবের ১৪তম আসর। এ উৎসব শেষ হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি।

বিজ্ঞাপন
বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন