৮৯তম একাডেমি অ্যাওয়ার্ড

দরিদ্ররাও খেল অস্কারের খাবার

বিজ্ঞাপন
default-image

একাডেমি অ্যাওয়ার্ডের সব আয়োজনেই থাকে বাড়তি চাকচিক্য। অস্কার অনুষ্ঠানের পর গভর্নরস বল অনুষ্ঠানে থাকে খাবারদাবারের বিরাট আয়োজন। ২৩ বছর ধরে এই মহাভোজের সব ধরনের খাবার ও পানীয় তৈরি করে আসছে শেফ ওলফগ্যাং পাক ও তাঁর দল। কিন্তু প্রতিবার এই আয়োজন শেষে একটি বিশাল পরিমাণ খাবারের জায়গা হয় ডাস্টবিনে। তবে এবারই প্রথম ঘটল ব্যতিক্রম।
অস্কার–ভোজের বেঁচে যাওয়া অবশিষ্ট খাবার এবার দিয়ে দেওয়া হয়েছে ক্ষুধার্ত ৮০০ দরিদ্রের মাঝে। আর এই উদ্যোগে অংশ নিয়েছেন অভিনেত্রী ফ্রিদা পিন্টো। গভর্নরস বলের নৈশভোজের আয়োজনে ১ হাজার ৫০০ জন আমন্ত্রিত অতিথির মধ্যে তিনিও ছিলেন।
অস্কারের লালগালিচায় সবাই যখন ব্যস্ত নিজের দামি গাউন প্রদর্শনে, ফ্রিদা তখন করছিলেন অন্য কাজ। সান ফ্রান্সিসকোর একটি দাতব্য সংস্থার সঙ্গে মিলে অস্কার-পরবর্তী ভোজের পর যে খাবার বেঁচে যাবে, সেই খাবার লস অ্যাঞ্জেলেসের দরিদ্রদের মধ্যে বণ্টনের পূর্বপ্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তিনি। ৫০টির বেশি পদ ছিল সেদিনের ওই আয়োজনে।
এই ক্যাম্পেইনে সবাইকে উৎসাহী করার জন্য ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্টও দিয়েছিলেন এই স্ল্যামডগ মিলিয়নিয়ার তারকা। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘খাবার নষ্ট করা নয়, বরং খাওয়ানোটাই জৌলুশের।’
গত ২৬ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার ডলবি থিয়েটারে বসেছিল ৮৯তম একাডেমি অ্যাওয়ার্ডের আসর। ফ্রিদা পিন্টোর কথা অনুযায়ী তাহলে বলতেই হয়, অন্যান্যবারের থেকে বেশি জৌলুশপূর্ণ হয়েছে এবারের অস্কার। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন