মাহি শ্বশুরবাড়ির বাহিরটা দেখালেন, ভেতরটা পরে দেখাবেন

বিজ্ঞাপন
default-image

ঈদের ছুটিতে ভক্তদের শ্বশুরবাড়ি দেখালেন চিত্রনায়িকা মাহি। নিজের ফেসবুকে পেজে তিনি ভিডিও চিত্রে শ্বশুরবাড়ির বহিরাঙ্গন দেখিয়েছেন। এও জানালেন, আপাতত বাইরের অংশটা। ভেতরের অংশ পরে আরেক দিন দেখাবেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাহির এ ভিডিও বেশ সাড়া ফেলেছে। অনেকে বলছেন, বিগত কয়েক মাস স্বামীর সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদের ভুয়া খবর প্রকাশ করছিল কে বা কারা। মূলত তাদের জবাব দিতেই এমন ভিডিও প্রকাশ করেছেন মাহি।

২০১৬ সালের ২৫ মে মাহমুদ পারভেজ অপুকে পারিবারিক পছন্দে বিয়ে করেন মাহিয়া মাহি। অবশ্য দুজনের মধ্যে পূর্বপরিচয় ছিল। সে সময় তিনি বলেছিলেন, ‘পরিবারের পছন্দে আমি বিয়ে করছি। আমার বরকে তাঁরাই পছন্দ করেছেন। আমিও তাঁদের পছন্দকে সম্মান জানিয়েছি।’

default-image

গত জানুয়ারি মাসে ফেসবুকে মাহিয়া মাহি একটি পোস্ট দিয়েছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘আমরা একসঙ্গেই আছি এবং ভালো আছি, আলহামদুলিল্লাহ। আপনাদের উল্টাপাল্টা নিউজে সত্যিই মানুষ বিভ্রান্ত হয়, প্লিজ, স্টপ ইট।’ এ ব্যাপারে সে সময় প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘বেশ কিছুদিন ধরে আমাদের সংসার নিয়ে বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে নানা কথা লেখা হচ্ছে। আর এসব লেখা হচ্ছে আমার সঙ্গে কোনো কথা না বলে। সবাই লিখছে, আমাদের সংসার ভেঙে গেছে। আমরা আলাদা হয়ে গেছি। গোড়াতে এসব লেখা পাত্তা দিইনি। এখন দেখছি আরও অনেকেই এই গুজব ছড়ানোর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। তাই এই স্ট্যাটাস দিতে বাধ্য হয়েছি।’ এ ধরনের ভাবনা কেন তৈরি হচ্ছে? মাহিয়া মাহি বলেন, ‘কারণ, অনেক দিন আমার স্বামীর সঙ্গে কোনো ছবি ফেসবুকে দেওয়া হয়নি।’ কেন দেননি? বললেন, ‘আমাদের পারিবারিক ব্যাপারকে সবার সামনে আনতে চাইনি। সেটা আমাদের ব্যক্তিগত জীবন।’ এ প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমে আরও বলেছিলেন, ‘আমি আর অপু ভালোই আছি। একসঙ্গে সংসার করছি। শুটিং থাকলে ঢাকায় থাকি। ফ্রি থাকলেই সিলেটে যাই শ্বশুরবাড়িতে। সেখানে সবাই আমাকে অনেক আদর করেন। এখানে সংসার ভাঙার খবর আসছে কেন, বুঝছি না?’

default-image

মাহির সেসব কথার সত্যতা মিলল ঈদের দিন। এবারের ঈদ মাহি শ্বশুরবাড়িতে ‘হামিদ ভিলা’য় করছেন। শ্বশুরবাড়ির কথা উল্লেখ করে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন। পাশাপাশি ঈদে শ্বশুরবাড়ির সবার সঙ্গে মিলে মাহি একটি ছবি প্রকাশ করেন, যেখানে শাড়ি পরিহিত মাহিকে স্বামী অপুর পাশে এবং অন্য আত্মীয়দের সঙ্গে দেখা যায়।

default-image

রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুনুডমালায় জন্মগ্রহণ করেন মাহিয়া মাহি। জাজ মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশি চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে মাহিয়া মাহির। প্রথম ছবি ‘ভালোবাসার রং’ দিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি। এর পর থেকে সমানতালে কাজ করে গেছেন তিনি। তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে আছে ‘অন্য রকম ভালোবাসা’, ‘পোড়ামন’, ‘ভালোবাসা আজকাল’, ‘তবুও ভালোবাসা’, ‘অগ্নি’, ‘দেশা-দ্য লিডার’, ‘অনেক সাধের ময়না’, ‘অনেক দামে কেনা’, ‘কৃষ্ণপক্ষ’, ‘রোমিও ভার্সেস জুলিয়েট’।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন