default-image

৭ মার্চ কলকাতার ব্রিগেড ময়দানে বিজেপির সমাবেশ হয়। সেখানে মিঠুন চক্রবর্তীকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে বরণ করে নেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সংবাদমাধ্যমে এ কথা প্রচার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রাজ্যের রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ সৃষ্টি হয়। বিজেপিতে মিঠুনের এই অভিষেক নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতির মাঠে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। তাঁর সঙ্গে এখন অন্য তারকার দেখা হওয়াও যেন বিপদ; রাজনীতির গন্ধ খুঁজে পান ভক্তরা। যেমন গতকাল রোববার দেব এমন এক আলোচনার জন্ম দেন। এদিন মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে টুইটারে নতুন ছবি দিয়ে ভক্তদের ভাবনায় ফেলেন, তাহলে কি আবার নতুন হিসাব কষছেন দেব?বাস্তবতা ভিন্ন। গতকাল ভারতে দোলের দিন ভক্তদের দুটি চমক দিলেন টালিউড তারকা দেব। এদিন সকালেই সামনে এসেছে দেবের আসন্ন ছবি ‘গোলন্দাজ’-এর ফার্স্ট লুক পোস্টার। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আবারও নতুন ছবি শেয়ার করেন দেব, যেখানে পাশাপাশি দুটি ছবিতে তাঁর সঙ্গে মিঠুন চক্রবর্তী। জানা গেল, ছোট পর্দার পর এবার বড় পর্দায় একসঙ্গে দেখা যাবে দেব ও মিঠুন চক্রবর্তীকে। এর আগে ‘হিরোগিরি’ ছবিতে তাঁদের দেখা গিয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

টুইটবার্তায় দেব জানান, তাঁর প্রযোজনা সংস্থা দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চারস ও অতনু রায়চৌধুরীর প্রযোজনা সংস্থা বেঙ্গল টকিসের পরবর্তী ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে চলেছেন মিঠুন চক্রবর্তী এবং তিনি নিজে। সংগত কারণে মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে রুপালি পর্দায় কাজ করার সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত দেব, সে কথা যোগ করতে ভোলেননি। ছবির নাম ঘোষণা না করলেও তা পরিচালনা করবেন অভিজিৎ সেন। টেলিপাড়ার পরিচিত মুখ তিনি।

default-image

আপাতত স্টার জলসার রিয়ালিটি শো, ‘ড্যান্স ড্যান্স জুনিয়ার’-এ একসঙ্গে দেখা যাচ্ছে দেব ও মিঠুন চক্রবর্তীকে। দোলের দিন বড় একটা সারপ্রাইজ আসতে চলেছে—তেমন ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিলেন দেব, অবশেষে সেরে ফেললেন ঘোষণা।
এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না, টালিউড, বলিউড, ঢালিউড—তিন ইন্ডাস্ট্রির হিরো মিঠুন চক্রবর্তী। জীবনের শুরুতে যোগ দিয়েছিলেন নকশাল আন্দোলনে। তারুণ্যের সবটুকু ঢেলে দিয়েছিলেন আদর্শিক সেই রাজনীতিতে। বামপন্থী হিসেবে সে সময় বেশ নামডাক ছড়িয়েছিল তাঁর। বামফ্রন্টের বড় বড় নেতার সঙ্গেও বন্ধুত্ব ছিল মিঠুনের। তত দিনে তিনি পুরোদস্তুর তারকা।

২০১৪ সালে পরিণত বয়সে যোগ দেন তৃণমূল কংগ্রেসে। বলেছিলেন, আগের ভুল শোধরাতে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন তিনি। তৃণমূলে থেকেই তিনি রাজ্যসভার সদস্য হন।ছয় বছর পেরোতে না পেরোতেই ‘ডিসকো ড্যান্সার’ মিঠুনের মনে হলো, তৃণমূলও ছিল মস্ত বড় ভুল। এবার তিনি যোগ দিলেন বিজেপিতে।

default-image

অন্যদিকে, তৃণমূলের সাংসদ দেব। তাঁদের রাজনৈতিক মতাদর্শ ও দল আলাদা, কিন্তু এই পার্থক্য চিড় ধরাতে পারেনি ব্যক্তিগত সম্পর্কে। বরাবরই মিঠুন চক্রবর্তীকে সমীহ করে চলেন দেব। ছোটবেলা থেকে শুটিং সেটে মিঠুনদাকে দেখে বড় হয়েছেন তিনি। মিঠুন চক্রবর্তীর বহু ছবির সেটে ক্যাটারার হিসেবে কাজ করেছেন দেবের বাবা, তেমনটা দেব নিজের মুখে জানিয়েছেন। সেই তারকার ছবির প্রযোজক হওয়া নিঃসন্দেহে বড় পাওনা দেবের কাছে। অন্যদিকে, বাংলা ছবির পর্দায়ও দীর্ঘদিন মিঠুন চক্রবর্তীকে দেখা যায়নি। সে ক্ষেত্রে দেবের সঙ্গে নবযাত্রা নিঃসন্দেহে বড় পাওয়া হবে ভক্তদের জন্য।

বিজ্ঞাপন
বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন