রাধারমণের ১০০তম তিরোধান তিথি চলছে। সেটা মনে রেখেই এই অনুষ্ঠান। এ ধারার প্রধান বলে লালনকেই প্রথম স্মরণ করা হলো তাঁর গানের মাধ্যমে। শিল্পকলা একাডেমীর সংগীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে গতকাল সন্ধ্যায় বসেছিল এই গানের আসর। ‘মানুষ গুরু নিষ্ঠা যার’—সাঁইজির এই গানটি দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন অনিমা মুক্তি গোমেজ।
অনুষ্ঠানের আয়োজক বাংলাদেশ সংগীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ। দুজন শিল্পীই গাইলেন। অনিমা মুক্তি গোমেজ গাইলেন লালন সাঁইয়ের গান। বিশ্বজিৎ রায় শোনালেন রাধারমণের গান। তাঁরা দুজনেই রাধারমণ সংস্কৃতি চর্চাকেন্দ্রের সদস্য।
অনুষ্ঠানে একটি লালনের গানের পর একটি রাধারমণের গান পরিবেশিত হয়। গানের শুরুতে ও প্রতিটি গানের ফাঁকে ফাঁকে অনুষ্ঠানের উপস্থাপক নাট্যকার ও লোকসংস্কৃতি গবেষক সাইমন জাকারিয়া লালন সাঁই ও রাধারমণ সম্পর্কে ছোট ছোট তথ্য দেন।
লালনের ‘সব লোকে কয় লালন কী জাত সংসারে’, ‘বাড়ির কাছে আরশিনগর’সহ আরও কিছু গান এবং রাধারমণের ‘ওরে ও রসিক নাইয়া’, ‘তুমি চিনিয়া মানুষের সঙ্গ লইও’, ‘ভবে আসা-যাওয়া যে যন্ত্রণা’সহ আরও অনেকগুলো গান উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করে।

বিজ্ঞাপন
বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন