‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৭’

সাম্বায় মাতল লোকসংগীত উৎসব

বিজ্ঞাপন
default-image

সাম্বার তাল কী, তা হয়তো ভালো জানেন ফুটবলপ্রেমীরা। বিশেষ করে ব্রাজিলের সমর্থকেরা। ব্রাজিলের ফুটবল বিশ্বকাপের সময়কার চেনা সুর বেজে উঠেছিল বনানীর মাঠে। ব্রাজিল থেকে এসেছিলেন সেখানকার লোকসংগীতশিল্পী মাউরিসিও টিযুম্বা। গেয়ে বাজিয়ে তাঁরা মনে করিয়ে দিয়েছেন দেশটিকে। এ বছরের অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে দলটি এসেছিল ঢাকার লোকসংগীত উৎসবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে মেরিল নিবেদিত ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৭’। তৃতীয়বারের মতো এ উৎসব আয়োজন করেছে সান কমিউনিকেশনস। নিবন্ধন নিয়ে নানা জটিলতার কথা শোনা গেলেও সন্ধ্যার পরপরই স্টেডিয়াম ভরে ওঠে নানা বয়সী দর্শক-শ্রোতায়। রাত বাড়ার পর উপচে পড়ছিল মানুষ। তবে আয়োজকদের বেধে দেওয়া নিয়ম মেনেই শেষ পর্যন্ত আনন্দ করেছেন তাঁরা।
উদ্বোধনের আগে সন্ধ‍্যার ঠিক পরে মঞ্চে ওঠে বাংলাদেশের তরুণ লোকগানের দল বাউলিয়ানা। তারা গেয়ে শোনায় ‘ধন্য ধন্য বলি তারে’, ‘বাউলা কে বানাইল রে’। শাহ আবদুল করিমের সান্নিধ্যে দীর্ঘ সময় কাটানো ফকির শাহাবুদ্দিন মঞ্চে উঠেছিলেন গুরুর ‘দিনও বন্ধু’ গানটি নিয়ে। একে একে তিনি গেয়ে শোনান ‘তুই যদি হইতি গলার মালা’, ‘বন্দে মায়া লাগাইসে’, ‘আগে কী সুন্দর দিন কাটাইতাম’ এবং একটি ভান্ডারি গান। তার পরে মাউরিসিও টিযুম্বা।
টিযুম্বার পরিবেশনের পরপরই শুরু হয় উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতা। স্বাগত বক্তব্য দেন সান কমিউনিকেশনসের চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘গত দুই বছরের সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে এবারও এই আয়োজন। পুরো বিশ্বের মানুষ মাছরাঙা টেলিভিশনে ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব দেখছে।’
প্রধান অতিথি হিসেবে উৎসব উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন, ‘আমাদের লোকেরা হাঁটতে হাঁটতে গান করেন। তাঁদের ধান কাটতে গান, নৌকা বাইতে গান, আসর বসিয়ে গান। এই গান আমাদের ভেতরে বিদ্যমান। এ ধরনের উৎসব রুচি গঠনে সাহায্য করে। এখানে যারা এসেছে, তাদের রুচি গঠনে এই উৎসব ভূমিকা রাখবে।’ সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী সৈয়দ মাহবুবুর রহমান এবং লোকসংগীতশিল্পী ইন্দ্রমোহন রাজবংশী। অতিথিদের হাতে উৎসব স্মারক তুলে দেন অঞ্জন চৌধুরী।
প্রথম দিনে দর্শকেরা আরও উপভোগ করেন তিব্বতের লোকশিল্পী তেনজিন চোগেয়াল এবং ভারতের আসামের পাপনের গান। পাপন নিজের জনপ্রিয় বাংলা গান ‘দিনে দিনে’সহ বেশ কিছু হিন্দি গান গেয়ে শোনান।
এ বছর বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, ইরান, ব্রাজিল, মালি, অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স ও জাপান থেকে প্রায় ১৪০ জন লোকসংগীতশিল্পী এই উৎসবে অংশগ্রহণ করছেন।
ঘরে বসে অনুষ্ঠানটি সরাসরি উপভোগ করা যাবে মাছরাঙা টেলিভিশন ও ফেসবুকের ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট’ পাতা এবং উৎসবের ইউটিউব চ্যানেলে।

আজ যা থাকছে
আজ শুক্রবার উৎসবের দ্বিতীয় দিনে গান করবে বাংলাদেশের বাউলিয়ানা, আরিফ দেওয়ান, শাহজাহান মুন্সি, নেপালের কুটুম্বা, পাকিস্তানের মেকাল হাসান ব্যান্ড এবং ভারতের নুরান সিস্টার্স।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন