default-image

প্রখ্যাত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এখন ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছেন। গত বৃহস্পতিবার তন্দ্রা কাটিয়ে ওঠার পর তিনি প্রথম ধীরে ধীরে নিচু কণ্ঠে বলেন, ‘আমি এত দিন কেন হাসপাতালে রয়েছি?’ বেলভিউ হাসপাতালের চিকিৎসকেরা বলেন, ‘আপনি তো অসুস্থ ছিলেন। এখন সুস্থ হচ্ছেন। আপনার করোনা নেগেটিভ হয়েছে। আপনার কোনো ভয় নেই।’

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় গতকাল নিজের মেয়েকেও চিনতে পেরেছেন। তিনি মেয়ের সঙ্গে কথা বলেন। হাসপাতাল সূত্র বলছে, মিউজিক থেরাপিতে বেশ কাজ দিচ্ছে এখন।

বিজ্ঞাপন

সৌমিত্রকে শোনানো হচ্ছে রবীন্দ্রসংগীত আর তাঁর অভিনীত প্রিয় ছবির প্রিয় গান।

হাসপাতাল সূত্রে বলা হয়েছে, সর্বশেষ ৪০ ঘণ্টায় জ্বর আসেনি অভিনেতা সৌমিত্রের।

বৃহস্পতিবার রাতে ঘুমও হয়েছে। তবে রাতে কয়েকবার অক্সিজেন প্রয়োজন দেখা দিলে তাঁকে বাইপ্যাপ ভেন্টিলেশন সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকেরা বলছেন, তাঁর রক্তে প্রোস্টেট ক্যানসারের মাত্রাও (পিএসএ) কমে এসেছে। সোডিয়াম ও পটাশিয়াম নিয়ন্ত্রণে আছে। চিকিৎসকেরা আরও বলেছেন, তিনি এখন বিপদমুক্ত হতে চলেছেন।

বিজ্ঞাপন

১৯ জন চিকিৎসক সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের চিকিৎসা করছেন। এর মধ্যে হাসপাতালের রয়েছে ১১ জন আর হাসপাতালের বাইরে থেকে আনা হয়েছে আরও ৮ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। করোনার চেয়ে চিকিৎসকেরা তাঁর অন্যান্য রোগ নিয়ে বেশি চিন্তিত।

১ অক্টোবর সৌমিত্রর জ্বর হয়। চিকিৎসকের পরামর্শে নমুনা পরীক্ষা করা হলে ৫ অক্টোবর তাঁর করোনা শনাক্ত হয়। ৬ অক্টোবর তাঁকে বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বয়স এখন ৮৫ বছর। ১৯৩৫ সালের ১৯ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগরে তিনি জন্মগ্রহণ করেন।

মন্তব্য পড়ুন 0