সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যা

অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন বলিউড অভিনেত্রী রিয়া

অবশেষে গ্রেপ্তার করা হলো বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে। টানা তিন দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো। মূলত মাদকের অবৈধ ব্যবহারের অভিযোগে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

রিয়া চক্রবর্তী
রিয়া চক্রবর্তীছবি: ইনস্টাগ্রাম
বিজ্ঞাপন

অবশেষে গ্রেপ্তার করা হলো বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে। টানা তিন দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো। মূলত মাদকের অবৈধ ব্যবহারের অভিযোগে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে মাদকযোগের পরই তদন্ত শুরু করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো। ভারতীয় সংবাদ সংস্থা ডিএনএ, টাইমস অব ইন্ডিয়া, বলিউড হাঙ্গামা, দ্য কুইন্ট খবরটি নিশ্চিত করেছে।

এর আগে প্রথমে একই অভিযোগে রিয়ার ভাই শৌভিকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত রোববার জেরা শুরু করে গতকাল সোমবারের পর আজ মঙ্গলবারও জেরা করা হয় রিয়াকে। আজ টানা আট ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় রিয়াকে। জানা গেছে, আজ বিকেল সাড়ে চারটায় রিয়ার মেডিকেল পরীক্ষার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই রিয়াকে গ্রেপ্তার করল ভারতের এনসিবি। মেয়ের গ্রেপ্তারের খবর দেওয়া হয়েছে রিয়ার মা–বাবাকে। একটু পরই রিয়ার কোভিড টেস্ট হবে।

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আগেই ধারণা করা হয়েছিল, রিয়া যেকোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারেন। কেননা রোববার মুম্বাইয়ের স্থানীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন রিয়াকে। অবশ্য সেদিন তাঁদের দপ্তরে যাওয়ার আগেই অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তীর আইনজীবী সতীশ মানেসিন্ধে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। শুধু তা–ই নয়, রিয়ার পক্ষে কোনো সময়ই আগাম জামিনের আবেদন জানানো হয়নি, বললেন রিয়ার আইনজীবী। ক্ষোভের সঙ্গে সতীশ মানেসিন্ধে বলেন, ‘আমার মক্কেল রিয়া গ্রেপ্তার হওয়ার জন্য প্রস্তুত। কারণ, এখানে ডাইনির খোঁজ চলছে। যদি কাউকে ভালোবাসা অপরাধ হয়, তাহলে নিজের ভালোবাসার জন্য ফল ভোগ করতে তৈরি রিয়া। যেহেতু তিনি নির্দোষ, তাই এখন পর্যন্ত কোনো আদালতে আগাম জামিনের জন্য আবেদন জানাননি। বিহার পুলিশ, সিবিআই, ইডি ও এনসিবিতে তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে।’

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে সুশান্তের মৃত্যু মামলার তদন্তে গ্রেপ্তার হয়েছেন রিয়া চক্রবর্তীর ভাই শৌভিক চক্রবর্তী। আরও গ্রেপ্তার করা হয়েছে সুশান্তের বাড়ির ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাকে। গ্রেপ্তার করেছে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ সংস্থা নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর হেফাজতে পাঠানো হয়েছে তাঁদের। গত শনিবার রাতে গ্রেপ্তার হন সুশান্তের পরিচালক দীপেশও। পরদিন, অর্থাৎ রোববার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটির ম্যারাথন জেরার মুখোমুখি হন রিয়া চক্রবর্তী। সেদিন সকালেই রিয়ার বাড়িতে সমন পৌঁছে দেন এ সংস্থার কর্মকর্তারা।

default-image

সমন পেয়ে তাঁদের দপ্তরে যান রিয়া। সেখানে ছয় ঘণ্টা ধরে রিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো বা এনসিবির কর্মকর্তারা। জিজ্ঞাসাবাদের মুখে রিয়া চক্রবর্তী বলেছেন, তাঁর ভাই শৌভিককে দিয়ে সুশান্ত সিং রাজপুতের জন্য মাদক আনাতেন। লাইভ হিন্দুস্তানের প্রতিবেদনে এমনটাই জানানো হয়েছে। তাদের প্রতিবেদন অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় সংস্থার কাছে রিয়া স্বীকার করেন যে সুশান্তের জন্য আবদুল বসিতের কাছ থেকে মাদক কিনতেন শৌভিক।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কয়েক দিন আগে সেই বাসিতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি মুম্বাইয়ের মাদক চক্রের সক্রিয় সদস্য বলে দাবি করেছেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ সংস্থার প্রতিনিধি। এ প্রতিষ্ঠানের আঞ্চলিক অধিকর্তা সমীর ওয়াংখেড়ে রোববার বলেন, ‘রিয়া দেরিতে আসার কারণে তদন্ত সম্পূর্ণ হয়নি।’

default-image

১৪ জুন মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় নিজ বাসায় সুশান্ত সিং রাজপুতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে বলা হয়েছে, আত্মহত্যা করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। আত্মহত্যার বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না সুশান্তের অসংখ্য ভক্ত। সেই তালিকায় রয়েছেন বলিউডের অসংখ্য তারকা থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিও। এমনকি বিহার পুলিশের ডিজিও তদন্ত শুরুর পর আত্মহত্যার কথা মেনে নিতে পারছিলেন না। অন্যদিকে একের পর এক প্রেমে ব্যর্থতা, মাদক, বাইপোলার ডিজঅর্ডার, নিম্নমুখী ক্যারিয়ার, পরিবারের সঙ্গে বিচ্ছিন্নতা—সবকিছু সুশান্তকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিয়েছিল বলে দাবি রিয়ার।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন