বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খুব বেশি লম্বা বলে চলচ্চিত্রের প্রথম অডিশনেও প্রত্যাখ্যাত হয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন।

default-image

মুম্বাইয়ের সংগ্রামের দিনগুলোয় অমিতাভকে নিজের বাড়িতে থাকার জায়গা দিতে চেয়েছিলেন কৌতুক অভিনেতা মেহমুদ।
বন্ধু নার্গিসকে লেখা তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর একটা সুপারিশ চিঠির জোরেই সুনীল দত্তের ‘রেশমা আউর শেরা’ ছবিতে সুযোগ পান অমিতাভ। তাও আবার ছবিতে তাঁর চরিত্রটি ছিল মূক।

অমিতাভ বচ্চনের প্রথম হিট ‘জঞ্জির’। এর আগে ১৯৬৯ থেকে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত পরপর তাঁর ১২টি ছবি ফ্লপ করে।

অন্য যেকোনো অভিনেতার চেয়ে বেশি দ্বৈত চরিত্র করেছেন অমিতাভ। শুধু তা–ই নয়, ‘মহান’ ছবিতে তিনি তিনটি চরিত্র করেছেন।

default-image

১৯৮২ সালে ‘কুলি’ সিনেমার সেটে এক দুর্ঘটনায় প্রায় মরতে বসেছিলেন অমিতাভ। ডাক্তার ও পরিবার তাঁর জীবনের আশাই ছেড়ে দিয়েছিল।

নব্বইয়ের দশকে প্রায় দেউলিয়া হতে বসেছিলেন অমিতাভ বচ্চন। যশ চোপড়ার কাছে তাঁকে একটি চাকরি চাইতে হয়েছিল। তার পরই তাঁকে ‘মোহাব্বতে’ সিনেমায় দেখা গিয়েছিল।

default-image

অমিতাভের প্রকৃত নাম শ্রীবাস্তব, কিন্তু তিনি নামের শেষাংশে বাবার কলমি নাম ‘বচ্চন’ ব্যবহার করেন। অমিতাভ সব্যসাচী। ডান–বাঁ দুই হাত দিয়েই লিখতে পারেন।

default-image

গায়ক না হলেও ২০টিরও বেশি চলচ্চিত্রে কণ্ঠ দিয়েছেন অমিতাভ বচ্চন।
১৯৯৫ সালের ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার তিনি অন্যতম বিচারক ছিলেন।
বিবিসি নিউজ পরিচালিত একটি জরিপে চার্লি চ্যাপলিন ও মার্লন ব্র্যান্ডোর মতো তারকাদের হারিয়ে ‘সহস্রাব্দের অভিনেতা’ খেতাব জিতে নেন অমিতাভ বচ্চন।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন