বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ঝুলন গোস্বামীর জীবন নিয়ে নির্মিত এ ছবি প্রসঙ্গে আনুশকা বলেছেন, ‘এই ছবির শুটিং শুরু করার সময় আমার যেন শারীরিক শক্তি ছিল না। নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস ছিল না। জিমে গিয়ে নানা ধরনের শারীরিক কসরত করতাম, যাতে আবার শক্তি ফিরে পাই। আসলে চাকদহ এক্সপ্রেস-এর শুটিং আগেই শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু লকডাউন হয় বলে ছবির সব কাজ থেমে যায়। তারপর আমি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ি। অবশেষে যখন এ ছবির কাজ শুরু হয়, তখন আমি ভীষণ নার্ভাস ছিলাম। কারণ, তখন সবে মা হয়েছি, তখন আমার মধ্যে আগের মতো শারীরিক শক্তি ছিল না। প্রায় ১৮ মাস আমি কোনো শারীরচর্চা করিনি। আমার শারীরিক অবস্থা আগের মতো ছিল না। তারপর নিজেকে নানাভাবে অনুপ্রাণিত করেছিলাম।’

default-image

নিজের নতুন সিনেমার ব্যাপারে আনুশকা আরও বলেন, ‘শুরুতে আমি নিশ্চিত ছিলাম না যে এই ছবি করব কি না। তবে আমি অন্তর থেকে ছবিটি করার জন্য যেন ডাক পাই। আমি সব সময় এ ধরনের ছবিতে কাজ করতে চেয়েছিলাম। আর আমি সব সময় আকর্ষণীয় আর কনটেন্টভিত্তিক ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রস্তুত।’

আনুশকা কিছুদিন আগে তাঁর নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা ক্লিন স্লেট ফিল্মস থেকে বেরিয়ে আসার ঘোষণা দিয়েছিলেন। এ বলিউড অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, এখন থেকে তিনি অভিনয়েই পুরোপুরি মনোযোগ দিতে চান। আনুশকা আর তাঁর ভাই কর্ণেশ শর্মা মিলে এ প্রযোজনা সংস্থা শুরু করেছিলেন। এখন ক্লিন স্লেট ফিল্মসের দায়িত্ব একাই সামলাচ্ছেন কর্ণেশ।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন