দীর্ঘদিন পর হলে বসে সিনেমা দেখেছেন সোনম
দীর্ঘদিন পর হলে বসে সিনেমা দেখেছেন সোনম ইনস্টাগ্রাম

এক জায়গায় বেশি দিন থাকতে পারেন না বলিউড তারকা সোনম কাপুর। তাঁর নাকি নিজেকে গাছ গাছ লাগে। তাই বিশেষ প্লেনে করে সোনম কাপুর গেছেন ইংল্যান্ডের লন্ডনে। লন্ডনে গিয়ে সোনম প্রথম কী করেছেন? আচ্ছা, সহজ করে দেওয়া যাক। ভারত বা বাংলাদেশে সিনেমা হল না খুললেও লন্ডনে কিন্তু ঠিকই খুলেছে। সিনেমার মানুষ সোনম লন্ডনে গিয়ে প্রথমেই ঢুকেছেন সিনেমা হলে। দেখেছেন ক্রিস্টোফার নোলান পরিচালিত টেনেট ছবিটি।

default-image

জীবনসঙ্গী আনন্দ আহুজাকে সঙ্গে করে দীর্ঘদিন পরে সিনেমা দেখলেন সোনম কাপুর। সেলফি তুলে ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করতেও ভোলেননি। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘অবশেষে সিনেমা হলে ঢুকলাম। সিনেমা হল আমাকে যত আনন্দ দেয়, আর কোনো কিছুই আমাকে ততটা খুশি করতে পারে না। বড় পর্দা একটা জাদুবাস্তবতা।’

default-image
বিজ্ঞাপন
‘হলে সিনেমা দেখার সঙ্গে আর কোনো কিছুর তুলনা হয় না। আর ডিম্পল কাপাডিয়া যা দেখালেন, এককথায় দুর্দান্ত। সিনেমা দেখার জন্য সিনেমা হলের কোনো বিকল্প নেই। বিকল্প হতে পারে না।’
সোনম কাপুর

নিরজা ও দিল্লি সিক্সখ্যাত তারকা টেনেট সিনেমায় অভিনয় করা ডিম্পল কাপাডিয়ার একটা ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘লন্ডনে পা রেখেই টেনেট সিনেমা দেখতে গিয়েছিলাম। দীর্ঘদিন পর বড় পর্দায় সিনেমা দেখে কী যে ভালো লাগল, তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। হলে সিনেমা দেখার সঙ্গে আর কোনো কিছুর তুলনা হয় না। আর ডিম্পল কাপাডিয়া যা দেখালেন, এককথায় দুর্দান্ত। সিনেমা দেখার জন্য সিনেমা হলের কোনো বিকল্প নেই। বিকল্প হতে পারে না। তাই সিনেমা হল ছিল, আছে আর থাকবে।’

২০১৯ সালে দ্য জোয়া ফ্যাক্টর সিনেমায় দুলকার সালমানের সঙ্গে জুটি বেঁধে সর্বশেষ অভিনয় করেছেন সোনম। সিনেমাটি বক্স অফিসে খুব একটা সাড়া জাগাতে পারেনি। এখন পর্যন্ত সোনমের নতুন সিনেমার কোনো খবর নেই।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর ‘নেপোটিজম’ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্যের পর বাজেভাবে সমালোচিত হন তিনি। বলেছিলেন, আগের জন্মে পুণ্য করেছিলেন, তাই বলিউড সুপারস্টারের ঘরে জন্মেছেন। এরপরই সোনমকে নিয়ে ট্রলের পর ট্রলে ভরে যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। সব মিলিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের মন্তব্যের ঘর তালা দিয়ে চুপচাপ আছেন। আপাতত বলিউডের বাতাস যেন গায়ে না লাগে, জীবনসঙ্গীর হাত ধরে এই অনিল কাপুরকন্যা তাই উড়াল দিয়েছেন লন্ডনে।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন