বড় পর্দায় বছরের পর বছর রাজত্ব করেছেন ক্যাটরিনা কাইফ। তাঁর অভিনয়, নাচ, চেহারা—সবকিছুই ভালো লেগেছে ভারতীয় দর্শকের। এমনকি ভুল হিন্দি উচ্চারণও ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখেছেন দর্শক। ক্যাটরিনার এই যাত্রায় কখনো প্রেমিক, কখনো বন্ধু হয়ে পাশে ছিলেন সালমান। এবার ইসাবেলার পথ চলায়ও ‘গাইড’ হিসেবে আছেন সাল্লু ভাই। ইসাবেলা কাইফ সম্পর্কে ক্যাটরিনা কাইফের ছোট বোন, বড় আদরের ছোট বোন। বোনকে বলিউডের বড় পর্দায় প্রতিষ্ঠিত করতে সম্ভাব্য সবকিছুই করছেন ক্যাটরিনা।

default-image

১২ তারিখে মুক্তি পেয়েছে ইসাবেলা কাইফের প্রথম ছবি, ‘টাইম টু ডান্স’। বলিউডের কোরিওগ্রাফার ও নির্দেশক রেমো ডি সুজা প্রযোজিত এই ছবি দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করলেন ইসাবেলা কাইফ। ছবিতে তাঁকে পর্দায় দেখা যাবে সুরাজ পাঞ্চোলির সঙ্গে। এখানে ইসাবেলার চরিত্র একজন বলরুম ডান্সারের। ছবির একটা বড় অংশের শুটিং হয়েছে লন্ডনে। ইসাবেলাকে এই ছবিতে নিতে পরিচালক স্ট্যানলি ডি কস্টাকে অনুরোধ করেছিলেন সালমান। এরপর তাঁকে দেখা যাবে সালমানের ভগ্নিপতি আয়ুশ শর্মার সঙ্গে। সেই ছবির শুটিংয়েই এই মুহূর্তে দিল্লির আগ্রায় আছেন ইসাবেলা।

default-image
বিজ্ঞাপন

সেখান থেকেই ভারতের এক দৈনিক পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান, বলিউডের এই যাত্রায় পাশে আছেন বড় বোন। ক্যাটরিনা তাঁর সিনেমা দেখে কী বলল? এই প্রশ্নের উত্তরে ইসাবেলা বলেছেন, ‘তিনি (ক্যাটরিনা) এখনো আমার ছবিটা দেখেননি। তবে গান আর ট্রেলার দেখেছেন। নাচের দৃশ্যে নাকি আমাকে ভালো দেখাচ্ছিল। তা ছাড়া আর কিছু বলেননি। তবে বলেছেন যে, বলিউড তারকা হওয়া বিশ্বের সবচেয়ে পরিশ্রমের চাকরি। আমাকে আরও অনেক খাটুনি করতে বলেছেন। আর বলেছেন, কে, কী বলল, তা শোনার দরকার নেই। আমি এখন আগ্রায়। আমরা দুজনে অনেক দূরে আছি। তবে দূরে থেকেও কাছাকাছি আছি।’

default-image

ইসাবেলা নিউইয়র্ক ফিল্ম একাডেমি অভিনয়ের ওপর চার বছর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। তাঁর স্বপ্নই ছিল বোনের মতো বলিউড তারকা হওয়ার। তাই আটঘাট বেঁধেই বলিউডের রাস্তায় পা রেখেছেন তিনি। এবার অভারতীয় এই দুই বোন মিলে কোমর বেঁধে রাজত্ব করবেন বলিউডের বড় পর্দায়।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন