default-image

সেদিনের সেই ভয়ংকর পরিস্থিতি বর্ণনা করে মালাইকা বলেছেন, ‘দুর্ঘটনার পর আমার কোনো হুঁশ ছিল না। আমি হতভম্ব হয়ে গিয়েছিলাম। আমার মাথায় যন্ত্রণা হচ্ছিল। আমি বোঝার চেষ্টা করছিলাম যে আমি জীবিত না মৃত। আমার শরীর থেকে প্রচুর রক্তপাত হয়েছিল। এত রক্ত দেখে ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। বুঝতে পারছিলাম না যে আমার সঙ্গে কী ঘটেছে। শুধু জোরে একটা আওয়াজ শুনতে পেয়েছিলাম। আর প্রবল ধাক্কা লেগেছিল। তারপর সবকিছু ঝাপসা হয়ে যায়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর আমার সংজ্ঞা ফেরে।’

default-image

মালাইকার গাড়ি দুর্ঘটনার ঘটনা ২ এপ্রিল মহারাষ্ট্রের খোপোলির কাছে হাইওয়েতে হয়েছিল। পুনেতে একটা ফ্যাশন উৎসবে শামিল হয়েছিলেন তিনি। পুনে থেকে মুম্বাইয়ে ফেরার পথে তাঁর গাড়ির সঙ্গে অন্য দুই গাড়ির জোরে ধাক্কা লাগে। দুর্ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে মালাইকাকে স্থানীয় বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এক দিন রাখার পর তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হয়।

default-image

গত সপ্তাহে মালাইকা তাঁর একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেছিলেন। এই ছবিতে দেখা গেছে যে আবার কাজের জগতে ফিরে তিনি দারুণ খুশি। চিকিৎসক তাঁকে দুই সপ্তাহের জন্য বেডরেস্ট নিতে বলেছিলেন। মালাইকা জানিয়েছেন যে শুটিংয়ের প্রথম দিন তিনি ক্লান্ত বোধ করছিলেন। নিজের মধ্যে কোনো প্রাণশক্তি পাচ্ছিলেন না এই বলিউড তারকা। অবসন্নতা ঘিরে ধরেছিল তাঁকে। সম্প্রতি মালাইকা আর তাঁর প্রেমিক অর্জুন কাপুরকে রণবীর-আলিয়ার বিয়ের রিসেপশনে দেখা গেছে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন