বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একটি দৈনিককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আরিয়ানের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে তাপসী পান্নু বলেন, ‘এটা তারকাজীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। একজন তারকা পছন্দ করুন বা না করুন, এমন পরিস্থিতি তাঁদের মেনে নিতেই হবে। তারকাজীবনের যেমন অনেক ইতিবাচক দিক আছে, তেমনি নেতিবাচক দিকও আছে। বড় তারকার পরিবারের সদস্য হিসেবে অনেক সুযোগ–সুবিধা পাওয়া যায়। ফলে নেতিবাচক ব্যাপারগুলোও মোকাবিলা করতে হবে।’

default-image

তাপসী আরও বলেন, ‘আমি মনে করি, এ রকম তারকাদের ব্যাপারে যাচাই–বাছাইয়ের ক্ষেত্রে সচেতন হতে হবে। ব্যাপারটা এমন নয় যে সে কোত্থেকে এসেছে জানি না। আমি নিশ্চিত, যা ঘটতে যাচ্ছে, সেসবের প্রতিক্রিয়া কী হতে পারে, সে সম্পর্কে তাদের ভালোই ধারণা আছে। তাই যত দূর সম্ভব, দেশের প্রচলিত আইনি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়েই তাদের যেতে হবে।’

default-image

ছেলে গ্রেপ্তার হওয়ার পর চলচ্চিত্রাঙ্গনের বন্ধুরা শাহরুখের পাশে দাঁড়িয়েছেন। রোববার সালমান খানকে শাহরুখের মুম্বাইয়ের বাড়িতে ঢুকতে দেখা গিয়েছিল। ফোনে শাহরুখকে সান্ত্বনা জানিয়েছেন কাজল, রানি মুখার্জি, দিপীকা পাড়ুকোন। অন্যদিকে অভিনেতা হৃতিক রোশন এক খোলা চিঠিতে আরিয়ানকে শান্ত থাকার পরামর্শ দিয়ে লেখেন, ‘জীবনের পথ বড় অদ্ভুত। তবে এ অনিশ্চয়তার মধ্যেই লুকিয়ে আছে বিশেষত্ব। যাঁরা যত দক্ষ, পরমেশ্বর তাঁদের দিকেই সবচেয়ে শক্ত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন। এসবের মধ্যেই তোমার নিজেকে সামলাতে হবে, আরিয়ান। হয়তো তুমি এখন ভয় পাচ্ছ, তোমার রাগ হচ্ছে, অসহায় লাগছে!’

default-image

২ অক্টোবর গোয়াগামী এক প্রমোদতরি থেকে আটক হন শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। মাদক রাখার অভিযোগে পরে তাঁকে গ্রেপ্তার করে ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)। দুই দফা এনসিবি হেফাজতে থাকার পর গত বৃহস্পতিবার আরিয়ানকে ১৪ দিনের জন্য কারাগারে পাঠান আদালত। এদিকে শুক্রবার সকাল থেকে দীর্ঘ শুনানির পর মাদক মামলায় আরিয়ান খানের জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন মুম্বাইয়ের আদালত। আরিয়ান এখন কারাগারে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন