default-image

মাত্র ১৩ বছর বয়সে মারাঠি সিনেমা ‘সাইরাত’-এ অর্চনা চরিত্রে অভিনয় করে রিঙ্কু রাজগুরু ভক্তদের মন জয় করে নিয়েছিলেন। ‘সাইরাত’ সিনেমা দেখার অনুভূতি জানিয়ে বলিউড অভিনেতা আমির খান লিখেছিলেন, তিনি এই সিনেমা দেখে দুই ঘণ্টা কারও সঙ্গে কোনো কথা বলতে পারেননি। একটা মিটিং ছিল তাঁর, সেটি বাতিল করতে হয়েছিল। এই ছবির রিমেক ‘ধড়ক’ দিয়ে বড় পর্দায় খাতা খোলেন শ্রীদেবী-কন্যা জাহ্নবী কাপুর।

default-image
বিজ্ঞাপন

সেই রিঙ্কুর বয়স এখন ১৯। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘হিন্দুস্তান টাইমস’কে জানান, ‘২০২১ সাল ঘিরে তাঁর পরিকল্পনা বলিউড নিয়ে। রিঙ্কুর প্রথম হিন্দি সিনেমা ‘আনপজড’ মুক্তির পর থেকেই প্রশংসায় ভাসছেন এই তরুণ তারকা। আমাজন প্রাইমে মুক্তি পাওয়া এই ছবিতে রিঙ্কু পর্দা ভাগ করেছেন রত্না পাঠক, রিচা চাড্ডা, অভিষেক ব্যানার্জিদের সঙ্গে।

default-image

রিঙ্কু বলেন, ‘আমার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ভরে গেছে “আনপজড”-এর প্রশংসায়। আমার প্রথম ওয়েব সিরিজ “হানড্রেড”-এ মানুষ আমাকে পছন্দ করেছেন। দীর্ঘ সময় পর আমার ফিরে আসাকে দর্শক এভাবে উদযাপন করবেন, ভাবিনি। আমি সত্যিই ভাগ্যবান।’

default-image

রিঙ্কুকে ‘ঝুন্ড’ সিনেমায় অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে দেখা যাবে। এই ছবির শুটিং চলছে। ‘হানড্রেড’-এর সফলতার পর আসছে ‘হানড্রেড টু’ ওয়েব সিরিজ। এখানেও থাকবেন রিঙ্কু। তা ছাড়া মারাঠি আরও দুটো সিনেমা আছে রিঙ্কুর হাতে। এত অল্প বয়সে এত কাজ যাঁর, সে নাকি একেবারেই সাধারণ। অনেকে রিঙ্কুকে বলেন, ‘তুমি যে এত বড় তারকা, তোমার চলাফেরা আচার-আচরণ আরও তারকাসুলভ হওয়া উচিত।’

default-image
বিজ্ঞাপন

এসব অবশ্য থোরাই কেয়ার করেন রিঙ্কু রাজগুরু। এই মারাঠি অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি একজন অভিনয়শিল্পী। অভিনয় আমার কাজ, পেশা। আমি সেটে অ্যাকশন আর কাটের মাঝে কেবল ছবির চরিত্রটা ধারণ করি। এর বাইরে আমি যেমন, তেমনই। ঘরে ফিরি। খাই, পড়ি, টিভি দেখি, বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিই। আমি তারকা নই, কখনো হতেও পারব না।’
ঘরে বসে ওয়েব সিরিজ দেখা রিঙ্কুর খুবই পছন্দ। তিনি বলেন, ‘অভিনেত্রী আর দর্শক—দুদিক থেকেই ওয়েব সিরিজ আমার খুবই পছন্দ। এখানে বেশ খানিকটা সময় পাওয়া যায়। নিজের গল্পটা নিজের খুশিমতো বলা যায়। আর দর্শকও ইচ্ছেমতো দেখতে পারেন। সব দিক থেকেই যথেষ্ট স্বাধীন এই মাধ্যম।’

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন