বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সম্প্রতি ভারতের লক্ষ্ণৌয়ে শুরু হয়েছে ‘ছত্রিওয়ালি’র শুটিং। রনি স্ক্রুওয়ালার প্রযোজনায় এটি পরিচালনা করছেন তেজস দেওস্কর। গতকাল শনিবার প্রকাশিত হয়েছে ছবির ফার্স্ট লুক। ইনস্টাগ্রামে সেই ছবি প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মৌসুম ছাড়াও যেকোনো সময় বৃষ্টি হতে পারে, আপনার ছাতা প্রস্তুত রাখুন।’ সিনেমাটি নিয়ে শুরু থেকেই বেশ উচ্ছ্বসিত এই অভিনেত্রী। সম্প্রতি ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাকুল বলেন, ‘আমি একই সঙ্গে ভীষণ রোমাঞ্চিত এবং উচ্ছ্বসিত। আমার মতে, কিছু কিছু বিষয় নিয়ে খোলামেলা কথা বলার দরকার আছে। জ্ঞান দিচ্ছি না, বলছি, হালকা মেজাজে আলোচনা করা ভালো। ঠিক এই কারণেই এই চরিত্রটি আমার এত পছন্দ হয়েছে।’

default-image

কনডম পরীক্ষকের চাকরি বেতনভুক্ত কর্মচারীর মতোই। বড় বড় কনডম উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য পরীক্ষার জন্য প্রাপ্তবয়স্ক কর্মীদের রাখেন। উৎপাদনের পর তাদের দেওয়া হয় সেসব পরীক্ষার জন্য। তাদের অভিজ্ঞতা ও সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করে এসব পণ্যের গুণগত মানে পরিবর্তন আনা হয়, তারপর ছাড়া হয় বাজারে। ছবি প্রসঙ্গে পরিচালক তেজস দেওস্কর বলেন, ‘আমাদের ছবিটি সামাজিক–পারিবারিক বিনোদনমূলক ছবি, যার লক্ষ্য কনডমের ব্যবহারকে কলঙ্কমুক্ত করা এবং আমরা সত্যিই উচ্ছ্বসিত যে ছবিটি শুটিং ফ্লোরে গেছে। রাকুল তার প্রতিটি চরিত্রে সতেজতা নিয়ে হাজির হয় এবং এ রকম একটি সংবেদনশীল, চিন্তা ও প্ররোচনামূলক বিষয়ের ছবি দেখতে বসলে দর্শকেরা অবশ্যই কমেডির রোলার-কোস্টার রাইড উপভোগ করবেন।’

default-image

সম্প্রতি বলিউড সিনেমার বিষয়বস্তুতে এসেছে ব্যাপক পরিবর্তন। ‘প্যাড ম্যান’, ‘টয়লেট এক প্রেম কথা, ‘সুই ধাগা’ ছবিগুলো তার প্রমাণ। বিনোদনের মাধ্যমে সচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি সামাজিক সংস্কার ভেঙে এগিয়ে যেতে ভূমিকা রাখছে ছবিগুলো। এবারে সেই তালিকায় যুক্ত হলো ‘ছত্রিওয়ালি’।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন