করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নিয়ে বল্লালদেবের বিয়ের আসরে

বিজ্ঞাপন
default-image

এত কাজের ভিড়ে সময় কই? তাই লকডাউনে তারকারা ব্যক্তিজীবনে যেন পেয়ে গেলেন অযাচিত অবসর। এই অবসর ‘বাহুবলী’ ছবির ভিলেন বল্লালদেব ওরফে রানা দাগুবাতির কাছে এল বসন্ত হয়ে। এই লকডাউনেই বিয়েটা সেরে নিলেন দক্ষিণ ভারতীয় এই তারকা।

কনের পরিচয় আগে থেকেই জানা, মিহিকা বাজাজ। গতকাল শনিবার রাতে হায়দরাবাদের রামানাইডু স্টুডিওতে বসেছিল এই জমকালো আসর। ভারতীয় তারকাদের বিয়ের আসর বসবে আর তাতে তারকায় ঝলমল করবে না, তা কি হয়? লকডাউনের মধ্যেও রানার বিয়েতেও এসেছিলেন বেশ কয়েকজন তারকা। তবে সংখ্যাটা ছিল হাতে গোনা। কারণ বিয়েতে সবে মিলে অতিথি উপস্থিত থাকার কোটা ছিল ৩০–এ।

তবে হুট করেই ঢুকে পড়া যায়নি বিয়ের আসরে। বিয়েতে অংশগ্রহণ করতে হাতে করে নিয়ে আসতে হয়েছে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ সার্টিফিকেট। তারপরই ঢোকার অনুমতি মিলেছে বিয়ের আসরে। অফ হোয়াইট রঙের ধুতি-কুর্তায় সেজেছিলেন রানা। আর মিহিকা পরেছিলেন অনামিকা খান্নার ডিজাইন করা হালকা গোলাপি রঙের লেহেঙ্গা। সঙ্গে মানানসই গয়না, নাকে বড় নথ। গুঞ্জন আছে, এক ঘণ্টায় ১০ হাজার কর্মী খাটলে যে কাজ হতো, এই লেহেঙ্গা বানাতে সেই পরিমাণ শ্রম দিতে হয়েছে। কারণ মিহিকাও একজন ডিজাইনার। তাই এই লেহেঙ্গা তৈরি করা হয়েছে বেশ যত্ন সহকারে।

default-image

বিয়েতে এসেছিলেন দক্ষিণী বড় বড় তারকা। ভেঙ্কটেশ, সামান্থা আক্কেনেনি, রাম চরণ, আল্লু অর্জুন ও নাগা চৈতন্যরা এসেছিলেন। শুধু তা–ই নয়, অনেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। রানা-মিহিকার বিয়ের অনুষ্ঠানের ছবি শেয়ার করে রানার প্রিয় বন্ধু রাম চরণ লিখেছেন, ‘অবশেষে আমার “হাল্ক” বিবাহিত। মিহিকা এবং রানা, নতুন জীবনে খুব ভালো থাকিস।’ ছবি শেয়ার করেছেন, অভিনেত্রী সামান্থা প্রভুও। সামান্থা সম্পর্কে রানা দাগুবাতির ভাবি হন। দক্ষিণী সুপারস্টার নাগা চৈতন্যর স্ত্রী সামান্থা। নাগার মা লক্ষ্মী দাগুবাতি আবার সম্পর্কে রানা দাগুবাতির ফুফু। রানা ও নাগা খালাতো ভাই।

মে মাসে রোকা অনুষ্ঠানে রানা দাগুবাতি ও মিহিকা বাজাজের প্রমের সম্পর্কের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হয়। আর তিন দিন ধরেই চলে বিয়ের নানা অনুষ্ঠান। গায়েহলুদ, মেহেদি আর বিয়ের দক্ষিণী কিছু অনুষ্ঠানে সাজানো ছিল তিন দিন।

default-image

রানা দাগুবাতিকে চেনানোর কোনো দরকার নেই। বাহুবলী সিনেমাই তাঁর সবচেয়ে বড় সাইনবোর্ড। তিনি এই সিনেমার ভিলেন বল্লালদেব–এর চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তা ছাড়া দক্ষিণ ভারতে একের পর এক হিট ছবি দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। লকডাউনে বন্ধ সব কাজ। দুটি ছবি আছে মুক্তির দোরগোড়ায় ‘হাতি মেরে সাথি’ ও ‘বিরাটপর্বম’। ‘হাতি মেরে সাথি’ ছবিতে তাঁর সঙ্গে আছেন বিশাল, পুলকিত সম্রাট এবং শ্রিয়া পিলগাঁওকার। ‘বিরাটপর্বম’–এ আছেন সাঁই পল্লবী, প্রিয়মণি ও নন্দিতা দাস।
রানার স্ত্রী মিহিকা বাজাজ হায়দরাবাদের মেয়ে। উদ্যোক্তা ও ইন্টেরিয়র ডিজাইনার। ডিউ ড্রপ ডিজাইন স্টুডিও নামে একটি ইভেন্ট শুরু করেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন