এই ছবিতে অভিনয় করেছেন কীর্তি। ছবির একটি গান ‘নিয়ে এন থায়ে’তে দেখা গেছে কীর্তিকে। গানটি সংগীতপ্রেমীদের ভালো লেগেছে। আলোচিত হয়েছে গানে তাঁর অভিনয়। বিশেষ করে তাঁর বীণা বাদন মুগ্ধ করেছে ভক্তদের। শুধু তা–ই নয়, বীণা বাদন নিয়ে যে অবাক হয়েছিলেন স্বয়ং ছবির পরিচালক প্রিয়দর্শনও, সে কথাই সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানালেন।

default-image

প্রিয়দর্শন বলেন, ‘কীর্তি সুন্দর বীণা বাজিয়ে আমাকে অবাক করে দেয়। সে ভায়োলিন বাজায়, অনেকেই সেটা জানে না। যেহেতু তাঁর মধ্যে সংগীত আছে, সে এই গান গাওয়ার চরিত্রে দারুণভাবে অভিনয় করেছে। কীর্তি সুরেশ এমনভাবে বীণা বাজিয়েছে যে একটা সিঙ্গেল নোটও ভুল করেনি। এটা আমাকে অবাক করেছে। সে ছিল একদম সাবলীল। আমি অবশ্যই বলতে পারি, বীণা বাজানোর সঙ্গে সঙ্গে গানও গাওয়া সহজ কাজ নয়। কিন্তু সে এটা করে আমাকে অবাক করে দিয়েছে।’

default-image

‘নিয়ে এন থায়ে’ গানটির সংগীত পরিচালক ছিলেন রনি রাফায়েল। লিখেছেন হরি নারায়ণ। হরি শঙ্কর ও রেশমা রাঘবেন্দ্র গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন। ছবির গল্প মুসলিম বীর কুঞ্জলি মারাক্কারকে নিয়ে। জামোরিনের রাজা সোমার্থি কুঞ্জলি তাঁকে নৌবাহিনীর প্রধান করেন। কালিকট বন্দরে ব্যবসায়ীর ছদ্মবেশে আসা পর্তুগিজ জলদস্যুদের রুখে দেওয়ার গল্প এই ছবির কাহিনি। মারাক্কারের ভূমিকায় দেখা গেছে মোহনলালকে।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন