default-image

দ্বিতীয় সন্তান জন্মের পর প্রথমবারের মতো রান্নার একটি শোতে অংশ নিলেন কারিনা কাপুর। সেখানেই এই অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ২০১৯ সালে ইতালি সফরের বিশেষত্বের কথা। আর সেখানেই উঠে এসেছে, কেবল পাস্তা খেয়ে আট কেজি ওজন বাড়িয়ে দেশে ফিরেছিলেন কারিনা।

default-image

ফিল্ম ফেয়ারের প্রতিবেদন অনুসারে, কারিনা বলেন, ‘আমরা ছুটি কাটাতে ইতালি গিয়েছিলাম। বেশ কিছুদিন ফ্লোরেন্সের তুস্কেনিতে ছিলাম। ওখানে বিশ্বের সেরা ব্রিক ওভেন পাস্তা হয়। আমি তো ডায়েট, ইয়োগা, জিম শব্দগুলো বেমালুম ভুলে গেলাম। দিন–রাত পাস্তা খেতাম। পাস্তা বানানো সহজ। আমিও বাড়িতে বানাই। কিন্তু ও রকম পাস্তা বানানো স্রেফ শিল্প। তারপর আট কেজি ওজন বাড়িয়ে এয়ারপোর্টে পাপারাজ্জিদের ফাঁকি দিয়ে কোনো রকমে বাড়ি ফিরেই শুরু করলাম ব্যায়াম। দ্রুত পাস্তার বাড়তি ওজনটুকু ঝরিয়ে কাজে ফিরেছিলাম।’

default-image

এমনিতেই কারিনা পাস্তা খুবই ভালোবাসেন। আর তা যদি হয় বিশ্বের সেরা পাস্তা, তাহলে তো কথাই নেই। ফেব্রুয়ারির ২১ তারিখে দ্বিতীয় সন্তান জন্ম দিলেন কারিনা। দুবার গর্ভবতী অবস্থায়ই কারিনার সব সময় পাস্তা আর পিৎজা খেতে ইচ্ছা করেছে।

বিজ্ঞাপন
default-image


‘জিরো ফিগার’খ্যাত কারিনা মনে করেন, আগের তুলনায় এখনকার তরুণ নায়িকারা খুবই স্বাস্থ্যসচেতন। ওই অনুষ্ঠানেই আরও বলেছেন, ‘এখনকার তারকারা বড় পর্দার পা রাখার আগেই জানে যে কী খাবে আর কী খাবে না। কিন্তু কারিশমারা যখন (কারিনার বড় বন কারিশমা কাপুর) তারকা, তখনো কিন্তু নায়িকারা এত স্বাস্থ্যসচেতন ছিল না। তারা জানত না, তাদের খাবারে কতটুকু তেল আর লবণ আছে। কেবল তেল, লবণ আর চিনি কমিয়ে দিলেই কিন্তু আপনি অনেকখানি সুস্থ আর ঝরঝরে থাকবেন।’
কারিনা জানান, পারিবারিকভাবেই তিনি অল্প খেলেই মোটা হন, আর সহজে ঝরিয়েও ফেলেন। কারিশমা কাপুরের বেলায়ও নাকি এই বিষয় প্রযোজ্য।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন