দ্রৌপদী হবেন দীপিকা

বিজ্ঞাপন
default-image

একের পর এক ভিন্নমাত্রার কাজ করছেন বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। সবে শেষ করলেন ছপাক ছবির কাজ। ছবিটি প্রযোজনাও করেছেন তিনি। এর মধ্যেই ঘোষণা এল নতুন ছবির। যে ছবি নিয়ে আলোচনা গত কয়েক বছর ধরেই। সেই আকাঙ্ক্ষিত ‘মহাভারত’ মহাকাব্যকে সেলুলয়েডে রূপান্তরের ঘোষণা দিলেন তিনি। আর তাতে দ্রৌপদীকে পর্দায় রূপ দেবেন দীপিকা নিজেই।

তবে এই মহাভারত হবে দ্রৌপদীর দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা মহাভারত। সম্প্রতি এই ধ্রুপদি ছবির কথা জানালেন দীপিকা নিজেই। এই ছবির প্রযোজক হিসেবে দীপিকার সঙ্গে আছেন মধু মন্টেনা। দ্রৌপদীর পাশাপাশি অন্য চরিত্রের জন্য অভিনেতা খোঁজা হচ্ছে। ছবিটি দুই অথবা তিনটি পর্বে তৈরি হবে। প্রথম পর্ব মুক্তি পাবে আগামী ২০২১ সালে দেওয়ালিতে।

ছপাক ছবিতে লক্ষ্মী আগারওয়ালের চরিত্রে অভিনয়ের পর ফের আরেকটি দুর্দান্ত চরিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন তিনি। দীপিকা বলেন, ‘আমি খুবই রোমাঞ্চিত ও সম্মানিত এমন একটি চরিত্রে অভিনয় করতে পারব বলে। আমি সত্যি বিশ্বাস করি, এটি আমার জীবনের অন্যতম সেরা চরিত্র হবে। মহাভারত মহাকাব্য ও মিথোলজি হিসেবে ব্যাপকভাবে পরিচিত। এর শিক্ষাও প্রভাব ফেলে মানুষের জীবনে। কিন্তু এটি বেশির ভাগই পুরুষকেন্দ্রিক দৃষ্টিকোণ থেকে আলোচিত হয়েছে। এবার মহাভারতকে নতুন প্রেক্ষাপটে বর্ণনা করা হবে। যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ আমার কাছে।’

ছবির প্রযোজক মধু মন্টেনা বলেন, ‘মহাভারত সম্পর্কে আমরা সবাই মোটামুটি জানি। কিন্তু আমাদের গল্পের ইউনিক বিষয় হলো, দ্রৌপদীর প্রেক্ষাপট থেকে মহাভারতের গল্প বলার বিষয়টি। কারণ, দ্রৌপদী ভারতীয় সংস্কৃতির অন্যতম কেন্দ্রীয় চরিত্র। আর সেই চরিত্রে দীপিকা অভিনয় করবেন। দীপিকা শুধু বড় তারকাই নন, দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বাইরেও তিনি জনপ্রিয়। যদি তাঁকে এই চরিত্রে না পাওয়া যায়, তবে এত বড় ক্যানভাসের চরিত্রকে ফুটিয়ে তোলা কঠিন হবে।’

এর আগেও মহাভারত নিয়ে আলোচনা কম হয়নি। আমির খান ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি মহাভারত নিয়ে ওয়েব সিরিজ করতে যাচ্ছেন। সেখানে তাঁকে দেখা যেতে পারে কৃষ্ণ হিসেবে। শাহরুখ খানও আগ্রহ দেখিয়েছেন মহাভারতে অভিনয়ের। যদিও সেসবের এখনো নিশ্চিত কোনো খবর পাওয়া যায়নি। বলিউড হাঙ্গামা

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন