বলিউড তারকা কঙ্গনা রনৌত
বলিউড তারকা কঙ্গনা রনৌতছবি:ইনস্টাগ্রাম

বলিউড তারকা কঙ্গনা রনৌত আর বোন রঙ্গোলি চণ্ডালকে মুম্বাই পুলিশ সমন পাঠিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কঙ্গনা আর বোন রঙ্গোলির পোস্টকে ঘিরে এই বিবাদ। কিছু সংগঠন এই দুই বোনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে। মুম্বাই আদালতও এই কেসের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। তাই মুম্বাই পুলিশ তাঁদের সমন পাঠিয়েছে। ১০ নভেম্বরের আগে তাঁদের পুলিশ স্টেশনে হাজির থাকতে হবে।

default-image

নিউজ এজেন্সি এএনআই টুইট করে জানিয়েছে, কঙ্গনা ও রঙ্গোলি চণ্ডালকে ১০ নভেম্বরের আগে মুম্বাই পুলিশ স্টেশনে আসতে হবে। তাঁদের বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ উঠেছে। তাই কঙ্গনা আর বোন রঙ্গোলিকে সমন পাঠানো হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাঁরা সস্তা জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা ধরনের পোস্ট করতে থাকেন। কঙ্গনা ও রঙ্গোলির বিরুদ্ধে অভিযোগ, ধর্মের বিরুদ্ধে নানা অভদ্র ভাষা তাঁরা প্রয়োগ করেছেন। মুম্বাই আদালত সিআরপিসির ২০২ ধারা অনুযায়ী তদন্তের আদেশ দিয়েছেন। আর অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে পুলিশের রিপোর্ট চেয়েছে।

বিজ্ঞাপন

কয়েক মাস ধরে কঙ্গনা এবং মহারাষ্ট্র সরকারের মধ্যে অনেক বাগবিতণ্ডা হয়েছে। এই বলিউড অভিনেত্রী মহারাষ্ট্র সরকার ও মুম্বাই পুলিশকে নানা তির্যক মন্তব্য করে আক্রমণ করেছেন। বলিউডের ‘কুইন’-এর বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতি উসকানির মতো গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। এর আগে কঙ্গনা ও রঙ্গোলি ভাইয়ের বিয়ের কারণ দেখিয়ে পুলিশের সামনে হাজির থাকেননি। এই দুই বোন তাঁদের আইনজীবীর মাধ্যমে বার্তা পাঠিয়েছিলেন। তাঁরা বলেছিলেন, বাসায় তাঁদের ভাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠান। তাই তাঁরা মুম্বাই পুলিশ স্টেশনে হাজির থাকতে পারছেন না।

default-image

প্রসঙ্গত, বিগত কয়েক মাসে বলিউড, বিতর্ক, টুইটার বা রাজনীতি—সব অঙ্গন মাতিয়ে রেখেছে একটাই নাম কঙ্গনা। ১৪ জুন সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই নানা মন্তব্য করে সংবাদ শিরোনাম হচ্ছেন কঙ্গনা।

কিছুদিন আগেই কৃষি বিল নিয়ে মন্তব্য করে মামলা খেয়েছেন। রমেশ নায়েক নামের এক আইনজীবী কৃষি বিলের মতো স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে ভুল ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানোর জন্য কঙ্গনার বিরুদ্ধে মামলা করেন। একই সময়ে আরও একটি মামলা করা হয়েছে কঙ্গনার বিরুদ্ধে।

default-image

দ্বিতীয় মামলাটি করেছে মুম্বাই পুলিশ। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুরহস্যের তদন্ত চলার সময়ে কটু ও বিভ্রান্তিকর মন্তব্য করে পরিস্থিতি জটিল করে তোলায় এ মামলা করা হয়। আর এই দুই মামলার আগেই বেআইনি নির্মাণের অভিযোগে মুম্বাই করপোরেশনের কর্মীরা কঙ্গনার বাড়ি ও বাড়ি লাগোয়া অফিসের খানিকটা ভেঙে ফেলেছেন।
অবশ্য এসবে মোটেও বিচলিত নন কঙ্গনা। বরং ক্ষেপে গিয়ে টুইটারে লিখেছেন, তিনি জেলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত। লিখেছেন, ‘আজ সবাই আমাকে জেলে পাঠাতে চায়। আমিও জেলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত। সবাই আমার পেছনে লেগেছে, এর মানে হলো আমি ঠিক রাস্তায় আছি। ওরা আমাকে জেলে পাঠাতে চায়, এটা আমাকে আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে। জেলে গেলে আমার জীবন আরও অর্থপূর্ণ হয়ে উঠবে। হ্যাঁ, আমি বিষয়টাকে এভাবেই দেখছি।’

default-image
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0