‘আমি এমন সব রাস্তায় হেঁটেছি, যে রাস্তা দিয়ে আগে কেউ পথ চলেনি। তাই রাস্তাটা একান্তই আমার হয়েছে।’
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

মিস ওয়ার্ল্ডের মুকুট মাথায় নিয়ে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বলিউডের পথে পা বাড়িয়েছিলেন। ২০২০ সালে দুই দশক পূর্তি হলো তাঁর। এ বছর মুক্তি পেতে যাচ্ছে প্রিয়াঙ্কার আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ আনফিনিশড। এই বই মুক্তিকে সামনে রেখে প্রিয়াঙ্কা স্মৃতি হাতড়ে কথা বলেছেন তাঁর জীবনের কিছু গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত নিয়ে।

গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘আমি কখনো নায়িকা হতে চাইনি। আমি কখনো তারকা হতে চাইনি। আমি সব সময় চেয়েছি এমন একজন হতে, যাঁর জন্য সীমানা বলে কিছু নেই। আমি প্রতিনিয়ত এমন কিছু স্পর্শ করি, যা আগে কেউ করেনি। আমি এমন সব রাস্তায় হেঁটেছি, যে রাস্তা দিয়ে আগে কেউ পথ চলেনি। তাই রাস্তাটা একান্তই আমার হয়েছে।’

default-image
বিজ্ঞাপন

প্রিয়াঙ্কা জানান, তিনি সব সময় মাথায় প্ল্যান ‘বি’ রাখতেন। যখন মিস ওয়ার্ল্ডে নাম লেখান, তখন ভেবেছিলেন, যদি এখান থেকে কিছু না হয়, তাহলে কলেজে ফিরে যাবেন। প্রচুর লেখাপড়া করে ক্যারিয়ার গড়বেন। কিন্তু তাঁর জীবন বদলে দিল সিনেমাই। ফ্যাশন ছবিটি তাঁর ক্যারিয়ারের মোড় ঘুরিয়ে দিল।

default-image

প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে আমি ফ্যাশন সিনেমায় অভিনয় করি। এই সিনেমার আগে মনে করা হতো, বক্স অফিস হিটের জন্য পুরুষ তারকা আবশ্যক। কিন্তু কোনো নায়ক ছাড়াই এই সিনেমা প্রচুর আয় করে। তখন আমি নিজেকে বলে উঠি, এক মিনিট, আমি নিজেই দর্শক তৈরির ক্ষমতা রাখি! এরপর আমার সিনেমা বাছাইয়ে পরিবর্তন আসে। কোয়ান্টিকোর অ্যালেক্স প্যারিসও আমার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া চরিত্র।’

default-image
বিজ্ঞাপন

কামিনে, বরফি, সাত খুন মাফ ও মেরি কমখ্যাত প্রিয়াঙ্কা জানান, তিনিও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগেছেন। অসংখ্যবার কোনো একটি কাজ নিয়ে আলাপ হয়েছে। কিন্তু শেষমেশ সেটি করেছে অন্য কেউ। তাই প্রিয়াঙ্কার মনে একটি ভয় ঢুকে গিয়েছিল যে তাঁর বিকল্প আছে। প্রিয়াঙ্কার ভাষায়, ‘আমার ২০ বছরের ক্যারিয়ারের সারমর্ম বলব এভাবে, এই মুহূর্তে আমার কোনো বিকল্প নেই। আমি নিজেকে সেখানেই নিয়ে গেছি।’

default-image
মন্তব্য পড়ুন 0