বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই মামলার এখনো তদন্ত চলছে। আর ইডির পক্ষ থেকে এই বলিউড নায়িকাকে এখনো ক্লিন চিট দেওয়া হয়নি। আর তাই ক্রিসমাস উদ্‌যাপন করতে তিনি বিদেশে তাঁর পরিবারের কাছে যেতে পারলেন না। এদিকে এই মামলার কারণে জ্যাকুলিনের পেশাগত দিক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বিদেশে ছবির শুটিংসহ আরও নানান কাজ তাঁকে স্থগিত রাখতে হয়েছে। কিছুদিন আগে এই মামলার কারণে তিনি সালমান খানের সঙ্গে ‘দাবাং’ ট্যুরে যেতে পারেননি।

default-image

ইডির কর্মকর্তাদের জ্যাকুলিন বয়ান দিয়েছেন, ২০১৭ সাল থেকে সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ শুরু হয়। এই বলিউড নায়িকার বক্তব্য, তামিলনাড়ুর প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার পরিবারের একজন বলে সুকেশ নিজের পরিচয় দিয়েছিলেন।

জ্যাকুলিন জিজ্ঞাসাবাদের সময় বলেছেন, ‘২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে আমার চেনাজানা শুরু হয়। ২০২১ সালে ওকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার পর থেকে ওর সঙ্গে কখনো সাক্ষাৎ হয়নি। জয়ললিতার পরিবারের সদস্য ছাড়া ও নিজেকে সান টেলিভিশন সংস্থার মালিক বলে পরিচয় দিয়েছিল।’

default-image

সুকেশ চন্দ্রশেখর জ্যাকুলিনকে প্রায় ১০ কোটি রুপির উপহার দিয়েছিলেন। এমনকি এই বলিউড নায়িকার পরিবারকে নানান উপহার দিয়ে ভরিয়ে দিয়েছিলেন এই প্রতারক।

default-image

পার্শিয়ান বিড়াল, ঘোড়া, গাড়ি, অলংকার থেকে আরও নানান কিছু আছে এই উপহারের তালিকায়। ইডি এখন সুকেশের দেওয়া এসব উপহার বাজেয়াপ্ত করার আইনি প্রক্রিয়ায় ব্যস্ত আছে। তাই জ্যাকুলিন ক্রমেই এই প্রতারণার মামলার জালে জড়িয়ে পড়ছেন।

default-image

জ্যাকুলিন ছাড়া নোরা ফতেহি, শ্রদ্ধা কাপুর, শিল্পা শেঠি, হরমন বাওয়েজার সঙ্গে সুকেশের সম্পর্কের কথা ফাঁস হয়েছে। তাই কেঁচো খুঁড়তে আর কত কেউটে বের হয়, তা সময়ই বলবে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন