জাহ্নবী কাপুর
জাহ্নবী কাপুর ইনস্টাগ্রাম

১২ আগস্ট নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেল গুঞ্জন সাক্সেনার বায়োপিক। মুক্তির সঙ্গে সঙ্গে ভারতীয় এয়ারফোর্সের পাইলট গুঞ্জনরূপী জাহ্নবী কাপুরের প্রশংসা করেছেন দর্শক ও সমালোচকেরা। তবে সেই সঙ্গে ভারতীয় বিমানবাহিনীর বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে চলছে বিতর্ক ও সমালোচনা। ইতিমধ্যে ভারতীয় বিমানবাহিনী থেকে ভারতীয় সেন্সর বোর্ড ও এ ছবির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠি পাঠানো হয়েছে নেটফ্লিক্সকেও। চিঠিতে ভারতীয় বিমানবাহিনী তাদের আপত্তির কথা জানিয়ে বেশ কিছু দৃশ্য ছেঁটে ফেলার অনুরোধ জানিয়েছে।


default-image
বিজ্ঞাপন

সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশনকে পাঠানো চিঠিতে বিমানবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ ছবিতে বায়ুসেনাদের নেতিবাচকভাবে দেখানো হয়েছে। এমনকি বিমানবাহিনীকেও ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। সেটি মোটেও সত্য নয়। এখানে এ–ও বলা হয়েছে, গুঞ্জন সাক্সেনার চরিত্রকে বড় করে দেখানোর জন্য ভারতীয় বিমানবাহিনীকে ছোট করে দেখানো হয়েছে। চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, ভারতীয় বিমানবাহিনী লিঙ্গবৈষম্য করে না। অথচ এ ছবিতে বিমানবাহিনী নারীদের প্রতি সহনশীল নয়, বরং অসহিষ্ণু, এমন সব দৃশ্য দেখানো হয়েছে। এগুলো আদৌ সত্য নয় বলে দাবি আইএএফের।

ইতিমধ্যে ধর্মা প্রোডাকশন পাল্টা চিঠিতে জানিয়েছে, ভবিষ্যতে তারা দেশের কোনো বাহিনীর সুনাম ক্ষুণ্ণ হয় বা দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়, এমন কিছু করবে না। এ প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আরও কথা দিয়েছেন, আইএএফকে ইতিবাচকভাবে তুলে ধরা হবে, যাতে পরবর্তী প্রজন্মের আইএএফ অফিসাররা ছবিটি দেখে উদ্বুদ্ধ হন। আর নারীরাও এ পেশায় আগ্রহী হন। ফলে ‘গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল’ ছবি মুক্তির পরও বেশ কিছু দৃশ্য বাদ দেওয়া হতে পারে।

default-image
বিজ্ঞাপন
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন