বলিউডের এই নবাগত নায়িকা ক্যারিয়ারের প্রথম ছবি প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘এই ছবিতে আমি অ্যাকশন, ড্রামা, নাচ, রোমান্স—সব কিছু করার সুযোগ পেয়েছি। তাই প্রথম ছবির মাধ্যমে আমি অনেক কিছু শিখতে পেরেছি।

default-image

একজন অভিনেত্রী হিসেবে আমি একজন মানুষের প্রায় সব অনুভূতি স্পর্শ করতে পেরেছি। তাই আমার জন্য পৃথ্বীরাজ এক শিক্ষণীয় সফর ছিল। দ্বিবেদিকে (চন্দ্রপ্রকাশ) আমি এই ছবি নিয়ে প্রচুর প্রশ্ন করতাম। তাঁর কাছে খুঁটিনাটি বিষয়ে জানতে চাইতাম।’

মানুষি আরও বলেন, ‘পৃথ্বীরাজ-এর মতো ছবির মাধ্যমে অভিনয় জগতে আসা সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। আমি এর আগে কখনো অভিনয় করিনি। তাই এটা আমার জন্য বিশেষ একটি ছবি। অক্ষয় স্যারের মতো অভিজ্ঞ তারকার সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। অনেক কিছু শিখেছি তাঁর কাছ থেকে। আদি (আদিত্য চোপড়া) স্যারও অভিজ্ঞ প্রযোজক।

default-image

আর দ্বিবেদি এত ভালো গবেষণা করেছিলেন যে রাজকুমারী তথা রানী সংযোগিতার চরিত্রটি আমার সামনে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। এর আগে আমি পড়ুয়া ছিলাম। তাই আমার মানসিক গঠন একজন পড়ুয়ার মতো ছিল। এক্ষেত্রে আমাকে এটা খুবই সাহায্য করে। যশরাজে এসে আমি ৯ মাস প্রশিক্ষণ নিয়েছি। একজন ছাত্রীর মতো দ্বিবেদি স্যারের কাছ থেকে আমি সবকিছু শিখতাম। আমার মনে হয় এর চেয়ে ভালো সুযোগ আমার জন্য আর কিছু হতে পারত না। আমি যখন ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিলাম, তখন সবাই বলেছিল এখানে সবচেয়ে কার্যকর হলো “ধৈর্য”। আর সত্যিই আমাকে অনেক ধৈর্য ধরতে হয়েছে।’

default-image

এদিন সংবাদ সম্মেলনে মানুষি জানান, তাঁর সবচেয়ে বড় শক্তি তাঁর পরিবার। ‘পৃথ্বীরাজ’ ছবিতে অক্ষয় কুমারকে রাজা পৃথ্বীরাজের ভূমিকায় দেখা যাবে। অক্ষয় কুমার আর সংযোগিতা ছাড়াও এই ছবির মূল চরিত্রে আছেন সঞ্জয় দত্ত, সোনু সুদ। যশরাজ ফিল্মসের এই ছবি আগামী ৩ জুন মুক্তি পাবে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন