বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আমাকে আমার বিছানা ঠিক করতে হবে। নিজের তাকে জমে থাকা ধুলা–ময়লা সাফ করতে হবে। সারা দিন বিছানায় পড়ে থাকলে চলবে না।’ সামান্থার এই পোস্ট দেখে মনে হচ্ছে, স্বাধীন জীবন তিনি ভালোই উপভোগ করছেন। আর নিজের জীবনে বেশ কিছু পরিবর্তন আনতে চান এই দক্ষিণি নায়িকা।

default-image

২ অক্টোবর সামান্থা–নাগা জুটি তাঁদের দাম্পত্য সম্পর্কের ইতি টানার ঘোষণা দেন। তবে তাঁরা বেশ কিছু সময় ধরেই আলাদা থাকছিলেন। খবর অনুযায়ী, গত এক মাস নাগার ঠিকানা ছিল হায়দরাবাদের একটি হোটেল।

অথচ গত বছরও এক সাক্ষাৎকারে সামান্থা জানিয়েছিলেন, একজন স্বামীর যা যা গুণ থাকা প্রয়োজন, নাগার মধ্যে তা ভরপুর আছে। নাগাকে তিনি স্বামী হিসেবে একদম ‘পারফেক্ট’ বলে মন্তব্য করেছিলেন। এই সাক্ষাৎকারে সামান্থা তাঁদের ‘বেডরুম সিক্রেট’ও ফাঁস করেছিলেন।

default-image

এই দক্ষিণি রূপসী মজার ছলে বলেছিলেন যে ‘চাই’–এর বিয়ে এক বালিশের সঙ্গে হয়েছে। কারণ, রাতে তাঁর আর নাগার মধ্যে সব সময় একটা বালিশ উপস্থিত থাকে। সামান্থা তাঁর স্বামী নাগাকে আদর করে ‘চাই’ বলে ডাকতেন। এই সাক্ষাৎকারে তিনি স্বীকার করেছিলেন, তাঁর অনেক ভুলত্রুটি সত্ত্বেও নাগা তাঁকে ভালোবাসেন।

default-image

২০১০ সালে সামান্থা আর নাগা চৈতন্য তেলেগু ছবি ইয়ে মায়া চেসাবেতে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন। ২০১৭ সালে হায়দরাবাদে তাঁদের বাগদান পর্ব হয়েছিল। আর ২০১৭ সালের ৬ অক্টোবর হিন্দুমতে সামান্থা আর নাগা গোয়াতে বিয়ে করেছিলেন। পরদিন তাঁদের খ্রিষ্টান রীতি অনুযায়ী বিয়ে হয়েছিল।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন