বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অন্য সব সিনেমায় যে দায়িত্ববোধ নিয়ে কাজ করেন, ঠিক একই রকম দায়িত্ব নিয়ে সীতার চরিত্রে কাজ করেছেন কৃতি। তিনি বলেন, ‘চরিত্রটির অনুভূতি ও ভূমিকা কী, আমি সেটা বোঝার চেষ্টা করেছি। একদল মানুষ অসন্তুষ্ট হবে, সেই ভয় নিয়ে কিন্তু অভিনয় করা যায় না।’ সীতার চরিত্রে অভিনয় কতটা গুরুত্বপূর্ণ, সেটা কৃতি বোঝেন না, তা নয়। তিনি বলেন, ‘আমি এ চরিত্রের দায় ও মর্যাদা বুঝি। ছবিটির চিত্রনাট্য খুব সাবধানে লেখা হয়েছে।’

default-image

সংযত ভঙ্গিতে কমনীয়তা বজায় রেখে চিত্রনাট্য লেখার কৃতিত্ব কৃতি দিয়েছেন পরিচালককে। তিনি বলেন, ‘সকল কৃতিত্ব ওম রাউতের। তিনি ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, বিষয়টি নিয়ে প্রচুর পড়াশোনাও করেছেন। তিনি বিশেষ মনোযোগের সঙ্গে কাজটি করেছেন, যাতে কোনোভাবেই সীমা লঙ্ঘিত না হয়। পরিচালকের দূরদর্শিতা ও স্বচ্ছতা আমার কাজটাকে আরও সহজ করে দিয়েছে। আমি যতটা সম্ভব সততার সঙ্গে চরিত্রটায় অভিনয় করেছি।’

default-image

কৃতি ‘আদিপুরুষ’ ছবিটি নিয়ে ভীষণ খুশি। তিনি বলেন, ‘শুটিং ভালোই চলছে। এটা আমার জন্য এক অনন্য অভিজ্ঞতা। কারণ, এখানে যেভাবে শুটিং হচ্ছে, এটা আমার জন্য একেবারে নতুন অভিজ্ঞতা। পুরোপুরি ব্লু স্ক্রিনে কাজ হচ্ছে। এ সেট থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।’ কৃতিকে শেষ পর্দায় দেখা গেছে ‘হাম দো হামারে দো’ ছবিতে। এর আগে ‘মিমি’ ছবিতে দুরন্ত অভিনয় করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন এ বলিউড তারকা। ‘আদিপুরুষ’ ছাড়া আগামী দিনে তাঁকে ‘গণপত’, ‘বচ্চন পান্ডে’, ‘ভেড়িয়া’ ছবিতে দেখা যাবে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন